সফরে পোপকে ‘রোহিঙ্গা’ শব্দ না বলার পরামর্শ

রোহিঙ্গা পরিস্থিতি দেখতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সফরের সময় ক্যাথলিক চার্চপ্রধান পোপ ফ্রান্সিস যেন ‘রাজনৈতিক সংবেদনশীলতা’র খাতিরে ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি ব্যবহার না করেন, সে জন্য তাঁকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যদি এর আগে পোপ ‘রোহিঙ্গা ভাই-বোন’ শব্দটি ব্যবহার করে তাদের প্রতি সহমর্মিতার কথা উল্লেখ করেছিলেন।  

ক্যাথলিক চার্চ ও রাজনৈতিকভাবে প্রভাবশালী কয়েকজন ব্যক্তির পোপকে এ ধরনের পরামর্শের বিরোধিতা করেছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা; যারা এরই মধ্যে ‘বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত এই দেশহীন জনগোষ্ঠীকে’ আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ‘রোহিঙ্গা’ বলেই অভিহিত করে আসছে।   

জেরুজালেমে শান্তি ফেরাতে আলোচনার আহ্বান পোপের

আল-আকসা মসজিদকে কেন্দ্র করে চলমান সংঘর্ষ নিরসন ও জেরুজালেমে শান্তি ফেরাতে ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস।

স্থানীয় সময় গতকাল রোববার ভ্যাটিকান সিটির সেন্ট পিটারস চত্বরে তীর্থযাত্রীদের সামনে বক্তৃতাকালে পোপ এ আহ্বান জানান।

পোপ ফ্রান্সিস বলেন, ‘জেরুজালেমে সাম্প্রতিক সময়ে চলমান সংঘর্ষ ও উত্তেজনা খুবই উদ্বেগের। আমি মনে করি, এ সংকট নিরসনে আন্তরিক ও সংযমী সংলাপ দরকার।’

উভয় পক্ষ যেন প্রস্তাবের মাধ্যমে শান্তি আলোচনায় বসে এবং সমঝোতায় পৌঁছাতে পারে, সে জন্য প্রার্থনার আহ্বানও জানান পোপ ফ্রান্সিস।

মৌলবাদ সকল ধর্মের রোগ : পোপ

খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস বলেছেন, রোমান ক্যাথলিক গির্জাসহ বিশ্বব্যাপী সব ধর্মের রোগ হলো মৌলবাদ। প্রথমবারের মতো আফ্রিকার তিন দেশ সফর শেষে ভ্যাটিকান সিটিতে ফিরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এর আগে আফ্রিকা সফরে তিনি সব ধর্মের মানুষের প্রতি সম্প্রীতি ও আশার বাণী শোনান।

তিনদিনের আফ্রিকা সফরে সবশেষে মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্র থেকে ফেরার পর তিনি বলেন, ‘মৌলবাদ সব সময় বিয়োগান্তক ঘটনা। এটা কোনো ধর্ম নয়। এর মধ্যে প্রভুকে খুঁজে পাওয়া যায় না। এটা পৌত্তলিকতা।’