ডিআর কঙ্গোয় নতুন সরকার ঘোষণা

মধ্য আফ্রিকার দেশ গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো সোমবার একটি জোট সরকারের ঘোষণা দিয়েছে। নতুন প্রেসিডেন্ট ফেলিক্স শিসেকাদি দায়িত্ব গ্রহণের সাত মাস পর এ সরকারের নাম ঘোষণা দেওয়া হলো।

সংবাদ সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানায়, প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র নতুন সরকারের সদস্যদের নাম ঘোষণা করার আগে প্রধানমন্ত্রী সিলভেস্ত্রা ইলুনগা সাংবাদিকদের বলেন,‘এখানে জোট সরকারের সদস্যদের নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট ওই ফরমানে স্বাক্ষর করেছেন এবং আমরা খুব দ্রুত কাজ শুরু করব।’

ইবোলা সংক্রমণ : ‘বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা

আফ্রিকার ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে প্রাণঘাতী রোগ ইবোলার প্রাদুর্ভাবকে একটি ‘বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা’ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বিবিসির বরাত দিয়ে সংবাদ সংস্থা ইউএনবির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে ডব্লিউএইচওর প্রধান টেড্রোস আদানম গিব্রাইয়াসুস ইবোলাকে ‘আন্তর্জাতিক পর্যায়ের জনস্বাস্থ্য সংকট’ বলে ঘোষণা করেন।

কঙ্গোতে তেলবাহী গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত ৫০

আফ্রিকার দেশ গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোতে জ্বালানি তেলবাহী ট্যাঙ্কারের সঙ্গে একটি গাড়ির সংঘর্ষে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন। জ্বালানি থেকে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়েছে আরো শতাধিক মানুষ।

কর্তৃপক্ষ জানায়, শনিবার দেশটির রাজধানী কিনসাসা থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরের কিসানতু এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এলাকাটি রাজধানী ও মাতাদি বন্দরের মাঝামাঝিতে অবস্থিত।

কঙ্গো সেন্ট্রাল প্রদেশের গভর্নর অতৌ মাতাবুয়ানা জানান, দুর্ঘটনার পর খুব দ্রুত আগুন আশপাশের বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে আগুনে পুড়ে মারা যান বেশিরভাগ মানুষ। হতাহতদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার চেষ্টা করছে কর্তৃপক্ষ।

কঙ্গোতে ইবোলায় আক্রান্ত ৬৯ জনের প্রাণহানি

গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গোর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রাণঘাতী রোগ ইবোলায় আক্রান্ত হয়ে ৬৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিএনএনে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত সোমবার কঙ্গোর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক প্রতিবেদনে ইবোলায় এই প্রাণহানির খবর জানায়। এ ব্যাপারে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (ডব্লিউএইচও) নিজেদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

কঙ্গোয় নৌকা ডুবে ৫০ জন নিহত

আফ্রিকার দেশ ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে নৌকা ডুবে প্রায় অর্ধশত মানুষ নিহত হয়েছে। কঙ্গোর উত্তরের শুয়াপ প্রদেশের উপগভর্নর রিচার্ড এমবয়ো লুকা দুর্ঘটনার কথা নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনার কারণ এখনো জানা যায়নি।

গতকাল শুক্রবার এই নৌকাডুবির ঘটনাটি ঘটে। নৌকাটি দেশটির মনকোটো থেকে এমবানডাকা অঞ্চলে যাচ্ছিল। দুর্ঘটনায় প্রায় ৬০ জন নৌকা অরোহী বেঁচে যান।

কঙ্গোতে গাড়ি চলাচলের রাস্তা ও রেলপথ কম থাকায় নৌ পথেই সাধারণ মানুষ যাতায়াত বেশি । অধিকাংশ সময়েই নৌযানগুলো ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন করে এবং প্রায়ই এমন দুর্ঘটনা ঘটে।

কঙ্গোতে বিদ্রোহীদের হামলায় ১৫ শান্তিরক্ষী নিহত

আফ্রিকার দেশ কঙ্গোতে বিদ্রোহীদের হামলায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনের ১৫ সদস্য নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৫৩ জন।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে রুয়ান্ডা ও উগান্ডা সীমান্তে দেশটির পূর্বাঞ্চলে নর্থ কিভু প্রদেশে এ হামলার ঘটনা ঘটে বলে সিএনএনের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

শান্তিরক্ষী বাহিনীর ওপর এই হামলাকে সাম্প্রতিক ইতিহাসের সবচেয়ে জঘন্যতম হামলা বলে আখ্যায়িত করা হচ্ছে।

কঙ্গোতে রেল দুর্ঘটনায় নিহত ৩৩

গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোতে এক রেল দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৩৩ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ২৬ জন।

স্থানীয় সময় রোববার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে লুয়ালাবা প্রদেশের বুয়োফউই এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জাতিসংঘের রেডিও চ্যানেল ওকাপির বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, ট্রেনটি কঙ্গোর লুবুম্বাসি শহর থেকে লুইনা শহরে যাচ্ছিল। ট্রেনের ১৩টি ট্যাঙ্কারে দাহ্য পদার্থ ভর্তি ছিল। যাত্রাপথে সেটি লাইনচ্যুত হয়ে পার্শ্ববর্তী একটি খাড়িতে পড়ে যায়। তখন হতাহতের ঘটনা ঘটে।

সৌদি আরবভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ জানায়, রেল দুর্ঘটনায় নিহতরা সবাই ওই ট্রেনে অবৈধভাবে ভ্রমণ করছিল। 

জঙ্গিভয়ে পালাচ্ছে মুসলমানরা, আশ্রয় দিচ্ছে গির্জা

মধ্য আফ্রিকার দুর্ধর্ষ জঙ্গিগোষ্ঠী ‘অ্যান্টি-বালাকা’র আতঙ্কে ঘর ছেড়ে পালাচ্ছে ওই অঞ্চলের দেশ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকের মুসলমানরা। আর এই গৃহহীনদের আশ্রয় দিতে এগিয়ে এসেছে ওই অঞ্চলের গির্জাগুলো।

সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ১৫০০-এর বেশি মুসলমান দেশটির দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলের বাঙ্গুই প্রদেশের একটি ক্যাথলিক গির্জায় আশ্রয় নিয়েছেন। এবং আশ্রয়প্রার্থী মুসলমানদের সংখ্যা দিন দিনই বাড়ছে বলে জানিয়েছেন ওই গির্জার একজন যাজক।

এইডস নিয়েও জিতলেন সেরা সুন্দরীর খেতাব

মাত্র ১১ বছর বয়সে শরীরে এইচআইভি ভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। তবে তাতে নিঃশেষ হয়ে যাননি তিনি। পড়াশোনা করেছেন, তিলে তিলে নিজেকে গড়ে তুলেছেন। এখন বয়স ২২ বছর। সম্প্রতি তিনি নির্বাচিত হয়েছেন ‘মিস কঙ্গো ইউকে।’

যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী কঙ্গোর নারীদের নিয়ে আয়োজন করা হয় ‘মিস কঙ্গো ইউকে’। এতে সবাইকে পেছনে ফেলে শীর্ষস্থান অধিকার করেছেন হরসেলি সিনদা ওয়া এমবঙ্গো। এইডস আক্রান্ত ওই নারী এখন কেবল সামনের দিকেই এগিয়ে যেতে চান।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, শৈশবে এইচআইভিতে আক্রান্ত হন হরসেলি। কিন্তু ছিটকে পড়েননি। বর্তমানে লন্ডনে পড়াশোনা করছেন ফাইন আর্টস নিয়ে।