Beta

রাশিয়া বিশ্বকাপ মাতাতে পারে পানামা

২৮ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৩২ | আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৩৪

স্পোর্টস ডেস্ক

ইতিহাসের একদম প্রথম বিশ্বকাপেই খেলেছিল যুক্তরাষ্ট্র। অবাক করার মতো ব্যাপার, সেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশটাই নেই এবারের বিশ্বকাপে! সবাইকে চমকে দিয়ে কনকাকাফ অঞ্চল (উত্তর, মধ্য আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ান) থেকে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকেট নিয়ে নিয়েছে পানামা। রাশিয়ার মাঠেই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে মাঠে নামতে যাচ্ছে উত্তর আমেরিকার দেশটি। পানামার সঙ্গে রাশিয়ার উড়ে যাবে মেক্সিকো ও কোস্টারিকাও।

প্রাক-বাছাই, বাছাইপর্ব শেষে যে কোনো অঞ্চলের সেরা তিন দল সরাসরি খেলবে বিশ্বকাপে। কনকাকাফ অঞ্চলের সেই সেরা তিন দল ছিল মেক্সিকো, কোস্টারিকা ও পানামা।

অচবশ্য রাশিয়ার বিশ্বকাপ আক্ষেপ হয়েই থাকল যুক্তরাষ্ট্রের জন্য। এতই ব্যর্থ ফুটবল খেলেছে দেশটি যে তারা থাকতে পারেনি পয়েন্ট টেবিলের সেরা চারেও, চারে থাকলেও দলটি অংশ নিতে পারত প্লে-অফে। ফলে ১৯৯০ বিশ্বকাপের সাত আসর পর যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়া মাঠে গড়াবে  বিশ্বকাপ। হন্ডুরাস অবশ্য খেলেছিল প্লে-অফে, তবে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে আগের বিশ্বকাপেই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের আসরে অভিষেক হওয়া দলটির সুযোগ।

২০১৬ সালের ১১ই নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছিল উত্তর, মধ্য আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব। ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর যখন শেষ হয়েছে সেই পর্ব ততক্ষণে ফিফা পেয়ে গেছে কনকাকাফ অঞ্চলের সেরা তিন দল।

প্রত্যেকটি একে অপরের বিপক্ষে মাঠে নেমেছে দুবার করে, ম্যাচ খেলেছে মোট দশটি। অভিষেক বিশ্বকাপেই অংশ নেওয়া মেক্সিকো শীর্ষস্থান দখল করেই জায়গা নেয় বিশ্বকাপে। ছয় জয়, তিন ড্র আর এক পরাজয়ে ২১ পয়েন্ট নিয়ে রাশিয়ার নিজেদের ১৭তম বিশ্বকাপ আসরে নামার সুযোগ পায় দলটি।

দশ ম্যাচে চার জয়, চার ড্র আর দুই পরাজয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে কোস্টারিকা ছিল দ্বিতীয় ম্থানে। তৃতীয় স্থানের জন্য পানামা ও হন্ডুরাস লড়েছিল সমানতালে। তিন জয়, চার ড্র আর তিন পরাজয়ে দুদলের পয়েন্ট সমান (১৩ পয়েন্ট) হলেও গোল বেশি হজম করায় রাশিয়ার টিকিট পায় পানামা।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement