Beta

বাণিজ্যমেলা ২০১৬

জমে উঠছে কেনাকাটা

২০ জানুয়ারি ২০১৬, ১৬:৫০

তৌহিদুল ইসলাম তুষার
বাণিজ্যমেলায় বাড়ছে মানুষের ভিড়। ছবি: তৌহিদুল ইসলাম তুষার

বছর ঘুরে আবারও জমে উঠেছে বাণিজ্যমেলা। মেলার ২১তম এই আসরটি গতবারের তুলনায় অনেক বেশি উৎসবমুখর হয়ে উঠেছে। মেলার প্রতি ক্রেতার আগ্রহ বাড়াতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দেওয়া হচ্ছে নানা রকম ছাড়। 

প্রথম ১০ দিন মূলত প্রস্তুতিতে কেটে যায় প্রতিষ্ঠানগুলোর, তাই আশানরূপ ভিড় ছিল না। তবে এখন ছুটির দিন না হলেও, বেশ ভিড় লক্ষ করছেন বিক্রেতারা। তাই প্রতিদিনই বিকেল হলেই মেলা প্রাঙ্গণ হয়ে উঠছে উৎসবমুখর। ছোট থেকে বড় সবাই ভিড় করছেন পাঁচ শতাধিকের বেশি স্টল ও প্যাভিলিয়নে। আর বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে এবার রয়েছে শিশুপার্ক।

এবারের মেলায় সব শ্রেণির ক্রেতাদের জন্য নানা ধরনের পণ্যের পসরা সাজানো হয়েছে। প্রতিবারের মতো এবারও ক্রেতাদের নজর বিদেশি প্যাভিলিয়ন ও স্টলের কসমেটিকস, ব্যাগ, জুতা, জুয়েলারি, কাপড় ও ইলেকট্রনিক পণ্যের প্রতি। তবে ক্রেতারা কিছুটা হতাশ বিদেশি প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশি পণ্য দেখে। যার ফলে অনেকেই পড়ছেন দ্বিধাদ্বন্দ্বে। 

মেলাকে দৃষ্টিনন্দন রূপ দিয়েছে ফার্নিচারের প্যাভিলিয়নগুলো। একই সঙ্গে সেখানে মিলছে ৭ শতাংশ থেকে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। সঙ্গে থাকছে ফ্রিতে বাসায় পণ্য পৌঁছে দেওয়ার সুবিধা। 

এবারের মেলায় বাংলাদেশসহ মোট ২১টি দেশ অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে মরিশাস, ঘানা, নেপাল, ভারত, পাকিস্তান, চীন, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি, নেপাল, হংকং, জাপান ও আরব আমিরাত। মেলা কর্তৃপক্ষের তথ্য মতে, ১৩ ক্যাটাগরিতে মোট ৫৫৩টি স্টল ও প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৬০টি প্রিমিয়ার, ১০টি জেনারেল, তিনটি রিজার্ভ ও ৩৮টি বিদেশি প্যাভিলিয়ন। এ ছাড়া ৩৬টি প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন, ১৩টি জেনারেল মিনি প্যাভিলিয়ন, ছয়টি রিজার্ভ মিনি প্যাভিলিয়ন, ২৫টি ফুডস্টল ও পাঁচটি রেস্টুরেন্ট রয়েছে এবারের বাণিজ্য মেলায়। 

মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। মেলায় প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য প্রবেশ মূল্য বা টিকেট মূল্য ৩০ টাকা এবং অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

Advertisement