Beta

গতির পরীক্ষায় গ্রামীণফোনই দেশসেরা

২৬ জুলাই ২০১৮, ২১:০৭

নিজস্ব সংবাদদাতা

বিশ্বখ্যাত ইন্টারনেটের সংযোগ এবং গতি পরীক্ষা ও গতি পর্যালোচনাকারী প্রতিষ্ঠান ওকলা ২০১৮ সালের প্রথমার্ধের জন্য গ্রামীণফোনকে বাংলাদেশের দ্রুততম মোবাইল ফোন নেটওয়ার্ক হিসেবে ঘোষণা করেছে।

দেশের সব মোবাইল ফোন অপারেটরের আধুনিক ডিভাইস ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেটের গতি পরীক্ষায় স্পিডটেস্ট অ্যাপ ব্যবহারের তথ্যের মাধ্যমে ওকলা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছে। এতে গ্রামীণফোন সামগ্রিকভাবে দেশের সবচেয়ে দ্রুতগতির মোবাইল ফোন অপারেটর হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে বলে আজ বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠানটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

ডাউনলোড ও আপলোড স্পিড দ্বারা ওকলার স্পিড স্কোর অর্জিত হয়। দেশের শীর্ষস্থানীয় অপারেটরগুলোর স্কোর নির্ধারণ করে সে অনুযায়ী নেটওয়ার্ক স্পিড দক্ষতার মর্যাদাক্রম করা হয়েছে। আধুনিক ডিভাইসে স্পিডটেস্টের মাধ্যমে বেরিয়ে আসা স্কোরের ভিত্তিতে চূড়ান্ত ঘোষণা দেওয়ার মুহূর্তে গ্রামীণফোনের স্কোর ছিলো ৯.২৫।

স্পিডটেস্টের নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান ওকলা ফিক্সড ব্রডব্যান্ড ও মোবাইল নেটওয়ার্ক টেস্টিং অ্যাপ্লিকেশন, ডাটা ও অ্যানালাইসিস প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। প্রতিদিন প্রায় ১০ মিলিয়নের বেশি গ্রাহক সবরকম স্পিডটেস্টের মাধ্যমে ইন্টানেটের গতি পরীক্ষা করে থাকেন এবং এখন পর্যন্ত ২০ বিলিয়ন টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে।

গ্রামীণফোনকে বাংলাদেশের দ্রুততম মোবাইল নেটওয়ার্ক হিসেবে ঘোষণা করায় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল ফোলি বলেন, ‘গ্রামীণফোন সবসময় বাংলাদেশের সবচেয়ে শক্তিশালী নেটওয়ার্ক নিয়ে গ্রাহকদের সেবা দিয়ে আসছে আর ওকলার এই সনদ আমাদের প্রচেষ্টার আরেকটি স্বীকৃতি। বাংলাদেশে চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্ক চালু করার সিংহভাগ কৃতিত্ব সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের।’

‘এর ফলে দেশব্যাপী সামগ্রিক নেটওয়ার্কের গতি ও উন্নত সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে বাস্তব উন্নতি ঘটেছে। শুধু ২০১৮ সালে স্পেকট্রাম, প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা এবং মূলধনী ব্যয়ের পাশাপাশি কভারেজ বিস্তারে চার হাজার কোটি টাকার  (৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার)  বেশি বিনিয়োগের ব্যাপারে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষকে আমরা সুলভমূল্যে আরো বেশি স্পেকট্রাম নিয়ে আসার জন্য আবেদন করেছি, যাতে করে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথ অনেক বেশি গতিশীল হয়।’  

এ প্রসঙ্গে ওকলার নির্বাহী ভাইস প্রেসিডেন্ট জেমি স্টিভেন বলেন, ‘স্পিডটেস্টের মাধ্যমে প্রতিদিন সংঘটিত লাখ লাখ টেস্টের মধ্য দিয়ে বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেটের সার্বিক অবস্থার বলিষ্ঠ ও সর্বাঙ্গীন চিত্র তুলে আনতে সক্ষম হয়েছে ওকলা। যথাযথ বিশ্লেষণের ভিত্তিতে গ্রামীণফোনকে বাংলাদেশের সবচেয়ে দ্রুততম মোবাইল নেটওয়ার্ক হিসেবে আখ্যায়িত করতে পেরে আমরা আনন্দিত। প্রথম ও দ্বিতীয় প্রান্তিকে গ্রামীণফোন গ্রাহকদের ইন্টারনেট ব্যবহারের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতেই ব্যাতিক্রমী দক্ষতাসম্পন্ন মোবাইল অপারেটর হিসেবে ভূষিত হয়েছে গ্রামীণফোন।’  

টেলিনর গ্রুপের অঙ্গসংগঠন গ্রামীণফোন ছয় কোটি ৯০ লাখের অধিক গ্রাহক নিয়ে বাংলাদেশের অগ্রণী টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠান। ১৯৯৭ সালে যাত্রা শুরু করার পর দেশব্যাপী সর্ববৃহৎ নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে গ্রামীণফোন; যার মাধ্যমে দেশের ৯৯ শতাংশ মানুষ সেবা গ্রহণ করতে পারে।

অপরদিকে হাজারও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান, সরকার, বিশ্ববিদ্যালয় এবং ব্যবসায়িক সংগঠনের জন্য ওকলা সল্যুশনসের ফলাফল ৩০টি ভাষায় ভাষান্তর করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। ওকলার প্রধান কার্যালয় ওয়াশিংটনের সিয়াটলে অবস্থিত। এ ছাড়া ডাবলিন ও আয়ারল্যান্ডে প্রতিষ্ঠানটির বর্ধিত কার্যালয়ে রয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement