Beta

কাঁচামরিচের ‘ঝাল’ বাড়লেও ‘ঝাঁজ’ কমেনি পেঁয়াজের

২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৭:৩৯

নিজস্ব প্রতিবেদক
আজ শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারের চিত্র। ছবি : মোহম্মদ ইব্রাহিম

রাজধানীর সবজির বাজারে ‘ঝাঁজ’ ছড়াচ্ছে কাঁচামরিচ। মাত্র তিনদিনের ব্যবধানে ৩০ টাকা থেকে ১০০ টাকা কেজি দরে কাঁচামরিচ বিক্রি করতে দেখা গেছে খুচরা বিক্রেতাদের। বৃষ্টির কারণে দাম বেড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পাইকাররা। তবে এই দাম নিয়ে হতাশা প্রকাশ করছেন ক্রেতারা। আজ শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারের কাঁচাবাজার ঘুরে এই তথ্য জানা গেছে।

দুপুরে বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, শুধু কাঁচামরিচ নয়, এক সপ্তাহের ব্যবধানে সিমের দাম কেজিপ্রতি ৪০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়। এ ছাড়া পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে বরবটির দামও। দুইদিন আগেও বরবটি বিক্রি হয়েছে ৫০ টাকায় অথচ আজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে।

বিক্রেতারা জানাচ্ছেন, করলার কেজি ৩০ টাকা বেড়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা দরে। গাজরের দামও কেজিপ্রতি ২০ টাকা বেড়ে ৫০ টাকা হয়েছে। তবে পেঁয়াজের দাম গত তিনদিনে বাড়েনি বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা। দেশি পেঁয়াজ ৭৫ টাকা আর ভারতীয়টা ৭০ টাকা দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে। এ ছাড়া শীতের সবজি চিচিংগা, ফুলকপি এবং পটল বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা দরে, পাতাকপি (ছোট) ৩০ টাকা, কচুর মুখি ৫০ টাকা, কাকরুল ৫০ টাকা ও পেঁপে ৩০ টাকা করে পাচ্ছেন ক্রেতারা।

এ দিকে ইলিশ মাছের বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, দাম বরাবরের মতো আছে। তবে বড় ইলিশের দাম খানিকটা বেড়েছে। যেমন, দুই কেজি ওজনের ইলিশ ১৪০০ থেকে দেড় হাজার টাকা দরে বিক্রি হলেও আজ কিছুটা বেড়ে ১৬০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। ছোট অর্থাৎ ৮০০-৯০০ গ্রাম ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকা কেজি দরে।

কাঁচা তরকারির খুচরা ব্যবসায়ী মো. আকবর এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘তিনদিনে দাম বেড়েছে তিনগুণেরও বেশি। বৃষ্টি হওয়াতে দাম বেড়ে গেছে। কারণ, যে এলাকায় বেশি বৃষ্টি হয়েছে সেখানে মরিচের গাছ মারা পড়বে বেশি। এরপর প্রতি কেজিতে ৪০ টাকা দরে দাম বেড়েছে সিমের।’

সবুর হোসেন নামের একজন বিক্রেতা বলেন, ‘কাঁচামালের দাম এই কম, এই বেশি। কখন কিসের দাম বাড়ে বলা মুশকিল। ঘণ্টায় ঘণ্টায় দাম বাড়ে কমে।’

মো. আকবর হোসনের দোকানে কাঁচামরিচ কিনতে এসেছিলেন শরিফুল ইসলাম নামের এক ক্রেতা। তিনি বলেন, ‘গত রোববার ৩৫ টাকা কেজিতে কাঁচামরিচ কিনেছি। আজ এত দাম! মরিচ ছাড়া খেতে হবে নাকি?’

Advertisement