Beta

বাংলাদেশি পোশাক ব্যবসায়ীদের ভারতে বিনিয়োগের আহ্বান

১৬ জানুয়ারি ২০১৭, ২১:১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক
বাংলাদেশ সফররত ইন্ডিয়ান মুসলিম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রতিনিধিদল আজ সোমবার বিকেলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের বৈঠক করে। ছবি : সংগৃহীত

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক ব্যবসায়ীদের ভারতে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ সফররত ইন্ডিয়ান মুসলিম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (আইএমসিসিআই) চেয়ারম্যান দাউদ খান। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাত সারা বিশ্বে ভালো সুনাম অর্জন করেছে। বাংলাদেশ ও ভারতের বাণিজ্য সম্প্রসারণে দুই দেশের চেম্বারগুলোর যোগাযোগ আরো বাড়ানো প্রয়োজন।  

আজ সোমবার বিকেলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা সভায় দাউদ খান এসব কথা বলেন। মতিঝিলে ডিসিসিআইয়ের কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় আইএমসিসিআইয়ের প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে তাঁরা এফবিসিসিআইয়ের নেতাদের সঙ্গে ফেডারেশন ভবনে বৈঠক করেন। 

আইএমসিসিআইয়ের চেয়ারম্যান দাউদ খান বলেন, ‘আমাদের চেম্বার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ইন্ডিয়ান মুসলিম চেম্বার সদস্যদের স্বার্থ সংরক্ষণের পাশাপাশি কর-নীতিমালা সংস্কার, শিল্প খাতের দক্ষতা উন্নয়ন এবং উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন সহজীকরণের লক্ষ্যে কাজ করে আসছে।’ 

এ সময় ডিসিসিআই সভাপতি আবুল কাসেম খান বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দীর্ঘদিনের দ্বিপক্ষীয় বন্ধুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক সম্পর্ক বিদ্যমান রয়েছে। ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণে দুই দেশের মধ্যকার কানেকটিভিটি বৃদ্ধি পেলেও সামনের দিনগুলোতে তা আরো বৃদ্ধির সুযোগ রয়েছে। তিনি দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়ন ও বাণিজ্য সম্প্রসারণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। 

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বিনিয়োগের জন্য ভারতের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আবুল কাসেম খান বলেন, বাংলাদেশে ব্যবসা-বান্ধব পরিবেশ উন্নয়নের লক্ষ্যে নীতিমালা সংস্কারের পাশাপাশি নতুন নীতিমালা প্রণয়নে ঢাকা চেম্বার দীর্ঘদিন ধরে সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে আসছে। 

আলোচনা সভায় ডিসিসিআইর জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি কামরুল ইসলাম, সহসভাপতি হোসেন এ সিকদার, পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আকবর হাকিম, ইমরান আহমেদ, আতিক-ই-রাব্বানী, মো. আলাউদ্দিন মালিক, মহাসচিব এ এইচ এম রেজাউল কবির এবং ইন্ডিয়ান মুসলিম চেম্বারের প্রতিনিধিদলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Advertisement