Beta

শ্রমিকদের ইতিবাচক মনোভাবে স্বস্তি : বিজিএমইএ সভাপতি

২৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯:২৩

পোশাক শ্রমিকদের ইতিবাচক মনোভাবের কারণে স্বস্তি ফিরে এসেছে বলে জানিয়েছেন বাংবাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান।

আজ মঙ্গলবার এনটিভি অনলাইনের কাছে এ কথা বলেন তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠনের সভাপতি।

সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘বার বার এ শিল্প নিয়ে চক্রান্ত হয়েছে। কোনোবারই চক্রান্তকারীরা সফল হয়নি। সরকারের সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেওয়ার কারণে পোশাক শিল্পে ইতিবাচক ধারা ফিরে এসেছে।’

একাধিক পোশাক মালিকের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আশুলিয়া এখন পুরোপুরিই শান্ত। কোনো শর্ত ছাড়াই কাজে ফিরেছে শ্রমিকরা। 

পুলিশ জানিয়েছে, তারা পোশাক শিল্পে উসকানিদাতা এবং তাদের সহযোগীদের চিহ্নিত করেছে।


সাংবাদিক দুইদিনের রিমান্ডে

আশুলিয়ায় তৈরি পোশাক শ্রমিকদের উসকানি দেওয়ার অভিযোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে গ্রেপ্তার একুশে টেলিভিশনের সাভার প্রতিনিধি নাজমুল হুদাকে দুইদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম মোস্তাফিজুর রহমান এ আদেশ দেন। 

দুই ব্যবসায়ীর প্রতিবাদ
নাজমুল হুদার সঙ্গে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ সরকার ও ঝুট ব্যবসায়ী সেলিম আহমেদ।

আমান উল্লাহ বলেন, নাজমুলকে তাঁরা মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাননি। কাকতালীয়ভাবে একই বিমানে গেছেন। পরে তাঁর সঙ্গে মালয়েশিয়ায় একাধিকবার দেখা সাক্ষাৎ হয়েছে। তিনি বলেন, ‘‘আমি ব্যবসায়ী। আমি বরং সাভারের হেমায়েতপুর এলাকায় বিভিন্ন তৈরি পোশাক কারখানার মালিকদের জমি কিনে দিয়েছি। তাদের সঙ্গে আমাদের নিবিড় সম্পর্ক। কখনো এ শিল্প এলাকায় কোনো শ্রমিক অসন্তোষ হলে তা মালিকদের সঙ্গে নিয়ে সমাধান করেছি।’ 

সেলিম আহমেদ বলেন, ‘আমি ঝুট ব্যবসায়ী। তবে আশুলিয়া অঞ্চলে কখনো ঝুটের ব্যবসা করিনি। আমান উল্লাহ সরকারের সঙ্গে আমার নাম জড়িয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা দুঃখজনক ও উদ্দেশ্যমূলক।’

ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান বলেন, ‘কেউ যাতে অহেতুক হয়রানির শিকার না হয়, সে ব্যাপারে কমিটি গঠন করা হয়েছে। যারা জড়িত নয়, তাদের কোনো ভয় নেই। আমরা যা করব আইনগতভাবেই করব। যাচাই-বাছাই ছাড়া কাউকে গ্রেপ্তার করা হবে না।’

Advertisement