Beta

ব্যবধান মাত্র এক বছর!

০৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৮:০৪

ইনডিপেনডেন্ট

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কিছুদিন ধরেই একটি শিশুর ছবি ঘুরে বেড়াচ্ছে। মাত্র এক বছরের ব্যবধানে তার শরীরের আমূল পরিবর্তনে অনেকে অবাক হচ্ছেন।   

অপুষ্টির শিকার এই বুলগেরিয়ান শিশুকে দত্তক নেওয়ার জন্য এক মার্কিন নারী দীর্ঘ পথ পাড়ি দেন। যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি অঙ্গরাজ্যের প্রিসিলা মোরস যখন রায়ান নামের এই অনাথ শিশুটিকে দত্তক নেন তখন তার অবস্থা ছিল খুবই করুণ। তার বয়স ছিল সাত বছর। কিন্তু তার ওজন ছিল মাত্র আট পাউন্ড। তার সারা শরীর পশমে ঢাকা ছিল। সে দুই হাত দিয়ে নিজেকে জড়িয়ে উষ্ণতা দিয়ে বাঁচানোর চেষ্টা করছিল।

দত্তক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নেওয়ার ১২ মাস পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রায়ান মোরসের এই ছবি দুটি পোস্ট করেছেন প্রিসিলা। এক বছর আগে তোলা ছবির চেয়ে বর্তমানে তোলা ছবিতে তাকে অনেক পরিপুষ্ট লাগছে এবং বর্তমানে তার ওজন ২৩ পাউন্ড।

মোরস ইনসাইড এডিশনকে বলেন, ‘প্রথম যখন আমি তাকে দেখি, সেই দৃশ্য খুব ভয়ঙ্কর ছিল। তার শরীরে শুধু হাড় ও চামড়া ছিল, আক্ষরিক অর্থে সে দেখতে একটি কঙ্কালের মতো ছিল। তাকে দেখেই আমার মনে হয়েছিল, সে মরতে যাচ্ছে।’

মোরস দত্তক নেওয়ার পর রায়ান প্রথম দুই সপ্তাহ যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে ছিল। হাসপাতাল থেকে আনার পরপর আবারও তাকে এক মাসের জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রায়ান সেরেব্রাল পালসি, মাইক্রোসেফালি, স্কলোয়োসিস (মেরুদণ্ড বেঁকে যাওয়া) ও বামন রোগে ভুগছিল।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement