Beta

ছুটির দিনে

চলুন যাই মেরিন ড্রাইভ সড়কে, খরচ ২৬০০ টাকা

০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:০২

সুমন্ত গুপ্ত

একপাশে সবুজ পাহাড়, ওপাশে নীল সমুদ্র । মাঝখান দিয়ে এঁকে বেঁকে চলে গেছে দীর্ঘ পিচ ঢালা মসৃণ পথ । এ পথের পুরোটাই পাহাড়-সমুদ্রের মিতালি । আর এই পাহাড়-সমুদ্রের মিতালি দেখতে হলে আপনাকে যেতে হবে কক্সবাজারে মেরিনড্রাইভ সড়কে।  পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র  সৈকত ছুঁয়ে এ মেরিন ড্রাইভ সড়ক এরই মধ্যে বিশ্বের দীর্ঘতম সড়ক খেতাব পেয়েছে।

যা দেখবেন

কক্সবাজার থেকে টেকনাফ সীমান্ত হয়ে সাবরাং জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত বিস্তৃত এ মেরিন ড্রাইভের রাস্তাটি । চলতি পথে রাস্তার বাম পাশে পাহাড় আর ডান পাশে সাগর । সাগরের ছোট ছোট ঢেউ মনের গহীনে তীব্র সমুদ্রের বিশালত্বের আনন্দের অনুভুতি এনে দেবে আপনার। অপরদিকে পাহাড়গুলোকে দেখে মনে হবে আপনার দিকে মাথা হেলিয়ে কুর্নিশের ভঙ্গিতে তাকিয়ে রয়েছে । কোথাও কোথাও পাহাড়ের গা বেয়ে ঝর্ণা ধারার দেখা মিলে । মেরিন ড্রাইভ রোড দিয়ে যেতে যেতে বিস্তৃত সাগরের সব সৌন্দর্য এবং জেলেদের সাগরে মাছ ধরার দৃশ্য উপভোগ করা যায় । সেই সাথে সমুদ্র সৈকতে দেখা মিলবে টেকনাফ গর্জন ফরেস্ট খ্যাত চির হরিৎ বন । চলতি পথে আরো দেখতে পাবেন রেজু খাল আর সমুদ্রের মিলন স্থলের এক পাশে সারি সারি সুপারি গাছ, অন্য পাশে ঝাউ বন । দুই পাশে আছে শ্বাস মূলীয় বন । এখান থেকে বেশি দূরে নয় ইনানী সমুদ্র সৈকত । ভাটার সময় ইনানীর সৈকতে জেগে ওঠা মৃত প্রবালের মাঝে দুদণ্ড সময় ভালোই লাগবে । ইনানী থেকে সামান্য সামনে জালিয়াপালং ধরে এগিয়ে গেলে দেখা পাবেন  পাহাড় কোলে নির্জন মেরিন ড্রাইভ । সমুদ্রের ঢেউয়ের গর্জন ছাড়া এখানে আর কোনো শব্দ পাওয়া বিরল । তবে এখানকার সমুদ্রে চিংড়িপোনা সংগ্রহে ব্যস্ত মানুষের দেখা মিলবে।

কীভাবে যাবেন

মেরিন ড্রাইভ সড়ক দেখতে হলে প্রথমে যেতে হবে কক্সবাজার । ঢাকা থেকে সড়কও আকাশ পথে সরাসরি কক্সবাজার যাওয়া যায় । ঢাকার ফকিরা পুল, কমলাপুর ও সায়েদাবাদ থেকে কক্সবাজার যায় সোহাগ পরিবহন, সেন্টমার্টিন সার্ভিস, দেশ ট্রাভেলস, শ্যামলী পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, সিল্ক লাইন সার্ভিস, রিল্যাক্স ট্রান্সপোর্ট, গ্রিন লাইনসহ আরো কিছু পরিবহনের এসি বাস । ভাড়া এক হাজার ৬০০ থেকে দুই হাজার টাকা। এ ছাড়া শ্যামলী পরিবহন , হানিফ এন্টারপ্রাইজ, এস আলম সার্ভিস, ইউনিক সার্ভিস, এনা পরিবহনের নন এসি বাসে ভাড়া ৮০০ টাকা। সুগন্ধা পয়েন্টে মেরিন ড্রাইভ রোড যাওয়ার খোলা জিপ, মাইক্রোবাস, সিএনজিও অটোপাবেন । সিএনজি কিংবা অটোরিকশাতে করে মেরিনড্রাইভ রোড ঘুরে আসতে অনেক বেশি সময় লাগবে। দিনে গিয়ে দিনে ফিরে আসার জন্য খোলা জিপগাড়ি ভাড়া করুন। এখানে সিজনের ওপর গাড়ি ভাড়া নির্ভর করে। অফ সিজনে গাড়ি রিজার্ভ করতে চার হাজার টাকা লাগতে পারে । আর সিজনে লাগবে প্রায় পাঁচ হাজার টাকা।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement