Beta

বিশ্বকাপের 'বিতর্কিত' সিদ্ধান্ত নিয়ে ভুল স্বীকার ধর্মসেনার!

২১ জুলাই ২০১৯, ১৮:২৪ | আপডেট: ২১ জুলাই ২০১৯, ২২:৪৬

স্পোর্টস ডেস্ক

সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপের ফাইনালে শেষ ওভারের চতুর্থ বলে দুই রানের জন্য দৌড় দেন বেন স্টোকস, কিন্তু বাউন্ডারি লাইন থেকে মার্টিন গাপটিল থ্রো করেন। সেই থ্রো বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে ওভার থ্রোতে বাউন্ডারির বাইরে চলে যায়। ফিল্ড আম্পায়ার আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা ছয় রান দেন। এই ছয় রান ইংল্যান্ডের অঙ্ক সহজ করে দেয়। যদিও ম্যাচ শেষ পর্যন্ত টাই হয়। খেলা গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও টাই হলে বাউন্ডারি ব্যবধানে ইংল্যান্ড জিতে যায় ম্যাচটি। তারা পায় প্রথমবার বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ।

তবে এরপর থেকেই আলোচনা শুরু হয়ে যায়। অনেকেই বলে থাকেন, ওভার থ্রোতে ওটা পাঁচ রান হবে, ছয় রান হবে না। আম্পায়াররা ইংল্যান্ডকে পাঁচ রানের পরিবর্তে ছয় রান দিয়ে ভুল রায় দিয়েছেন বলেও দাবি করেন সাবেক আম্পায়ার সাইমন টাফেল।

আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার এই একটা ভুলের কারণে বিশ্বকাপ হাতছাড়া হয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের? বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়ে তোলপাড় হয়ে ওঠে ক্রিকেট বিশ্ব। অবশেষে সেই 'বিতর্কিত' সিদ্ধান্ত নিয়ে মুখ খুললেন শ্রীলঙ্কার আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা। ভুল স্বীকার করলেও অনুতপ্ত নন তিনি। 

বিশ্বকাপ ফাইনালের সাত দিন পেরিয়ে যাওয়ার পর অবশেষে সানডে টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ধর্মসেনা বলেন, ‘টিভি রিপ্লে দেখে যেকোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়তো সহজ। কিন্তু রিপ্লে দেখার কোনো সুযোগ ছিল না আমাদের কাছে। আমি মানছি সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। কিন্তু তা নিয়ে আমার কোনো অনুশোচনা নেই।’

ধর্মসেনা আরো বলেন, ‘মাঠে বসে টিভি রিপ্লে দেখার কোনো সুযোগ নেই। টিভি আম্পায়ারের কাছে যাওয়ার কোনো সুযোগ ছিল না আমাদের কাছে। আমি লেগ আম্পায়ারের সঙ্গে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত জানাই। আমি যে লেগ আম্পায়ারের সঙ্গে আলোচনা করেছিলাম সেটা অন্য আম্পায়াররা এবং ম্যাচ রেফারিও শুনেছিলেন।’

ধর্মসেনার সেই সিদ্ধান্ত ভুল দাবি করে সাবেক আম্পায়ার সাইমন টাফেল বলেছিলেন, ‘আম্পায়াররা ইংল্যান্ডকে পাঁচ রানের পরিবর্তে ছয় রান দিয়ে ভুল রায় দিয়েছেন। এটা পরিষ্কার ভুল। ইংল্যান্ডকে ছয় রান নয়, পাঁচ রান দেওয়া উচিত ছিল।’

আইসিসির নিয়ম (১৯.৮) অনুযায়ী ওভার থ্রোর বাউন্ডারির ক্ষেত্রে ফিল্ডার বল ছাড়ার মুহূর্তে ব্যাটসম্যানরা পরস্পরকে ক্রস করলে তবেই তাদের ফিল্ড রান যোগ হবে ওভার-থ্রো’র বাউন্ডারির সঙ্গে।

টিভি রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা যায় যে, গাপটিল বল ছোড়ার সময় স্টোকস ও আদিল রশিদ দ্বিতীয় রানের জন্য পরস্পরকে ক্রস করেননি।

ক্রিকেট আইন প্রণয়নকারী সংস্থা এমসিসির উপকমিটির অন্যতম সদস্য সাইমন টাফেল আরো বলেন, ‘যেহেতু দুই রান সম্পন্ন হয়নি তাই স্টোকসের পরিবর্তে স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা উচিত ছিল রশিদের। তার মানে হলো পঞ্চম বলটি মোকাবিলা করতেন রশিদ। তখন দুই বলে জয়ের জন্য চার রানের প্রয়োজন হতো ইংলিশদের। থ্রো করার মুহূর্তে তারা দ্বিতীয় রান নেওয়ার সময় একে-অপরকে ক্রস করেননি। সুতরাং পাঁচ রান বরাদ্দই ছিল সঠিক এবং বেন স্টোকসের নন স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা উচিত ছিল।’

আম্পায়রের ভুল নিয়ে এই অস্ট্রেলীয় আম্পায়ার বলেন, ‘অবশ্যই টিভি রিপ্লে দেখা উচিত ছিল। আম্পায়ারের জন্য কঠিন হলো আপনাকে ব্যাটসম্যানদের রান সম্পন্ন হওয়া দেখতে হবে, তারপর আপনার ফোকাস থাকতে হবে ফিল্ডারের বল তোলার দিকে এবং বল ছোড়ার দিকে। ওই সময়ে ব্যাটসম্যান কোথায় ছিল সেটাও আপনাকে দেখতে হবে।’

Advertisement