Beta

‘তুই শাহিন সুমন হলে আমি কে?’

১৪ মার্চ ২০১৯, ১২:১৫

শাকিব খানের নতুন ছবির নায়িকা হওয়ার জন্য ছোট পর্দার অনেক নায়িকা প্রস্তাব পাচ্ছেন। মোবাইল ফোনে প্রস্তাবদানকারী নিজেকে আবার পরিচয় দিচ্ছেন পরিচালক শাহিন সুমন হিসেবে। তবে শাহিন সুমনের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেল, তিনি কাউকে এ ধরনের প্রস্তাব দেননি। বিষয়টি নিয়ে তিনি বিব্রত বোধ করছেন। ইদানীং পত্রিকাতেও অনেক পরিচালকের নামে বিজ্ঞাপন দিয়ে এমন প্রতারণা করা হচ্ছে বলে জানান শাহিন সুমন।

ছোট পর্দার নায়িকা দোলন দে এনটিভি অনলাইনকে জানান, তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রস্তাব পেয়েছেন কিছুদিন আগে। ছবিটি নাকি শাহিন সুমন পরিচালনা করবেন। একাধিকবার এই ছবিতে কাজের ব্যাপারে ফোন পেয়েছেন দোলন। ছবিতে নায়ক হিসেবে শাকিব খানের থাকার কথাও বলা হয়েছে তাকে। জবাবে, ছবির গল্প না শুনে কথা দিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন দোলন।

এ বিষয়ে পরিচালক শাহিন সুমন বলেন, “আমি শাকিব খানকে নিয়ে ‘একটু প্রেম দরকার’ শিরোনামে একটি ছবির শুটিং শেষ করেছি। এখন পোস্ট প্রডাকশনের কাজ করছি। নতুন একটি ছবির গল্প গোছাচ্ছি, তবে এই বিষয়ে এখনো কারো সাথে কোনো কথা হয়নি।’  তিনি আরো বলেন, ‘ছোট পর্দার অনেক শিল্পীকেই আমি চিনি না। সেই হিসেবে দোলন দে-কেও আমি ঠিক চিনতে পরছি না। দেখলে হয়তো বলতে পরব। তবে এমন কারো সাথে আমরা ছবির বিষয়ে কথা বলিনি। শাকিব খানের নায়িকা হিসেবে আমি কাউকে অফার করিনি।’

নায়িকা দোলন দে’কে যে ফোন নম্বর থেকে ফোন দেওয়া হয়েছে সেটি শাহিন সুমনের ফোন নম্বর নয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহিন সুমন নিজেই। তা ছাড়া ওই নম্বরে ফোন দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

পরিচালকের নাম ভাঙিয়ে এমন প্রস্তাব রাখা নতুন নয়। শাহিন সুমন বলেন, ‘আমার নামে ভুয়া বিজ্ঞাপন দিতেও দেখেছি। আমার নাকি সহকারী লাগবে, আমার ছবির নায়ক নায়িকাদের সহকারী লাগবে। এমন অনেক বিজ্ঞাপন চোখে পড়েছে এর আগে। আমি নিজেও দুয়েকটি নম্বরে ফোন দিয়েছি। তখন ওপাশ থেকে ফোনে বলে, আমি শাহিন সুমন বলছি। তখন আমি তাকে বলি, তুই শাহিন সুমন হলে আমি কে? এফডিসিতেও এমন লোক এসেছে, যারা শাহিন সুমন পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করেছে।’

সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে শাহিন বলেন, ‘আমরা যখন কাজ করি তখন সবাইকে জানিয়েই কাজ করি। আর যদি ছোটপর্দা থেকে শিল্পী নিই, তা হলে সেটাও ঘোষণা দিয়ে নিয়ে থাকি। আর আমাদের বা আমার শিল্পীদের কারো সহকারী প্রয়োজন হলে সেটা পত্রিকাতে বিজ্ঞাপন দেব না। আমাদের আশপাশে প্রশিক্ষিত মানুষ রয়েছে, যারা এসব কাজের জন্য উপযুক্ত। প্রতারণার শিকার হবেন না। সবাইকে এই বিষয়ে বলব, সন্দেহ হলে আপনারা এফডিসিতে পরিচালক সমিতিতে যোগাযোগ করলেই পুরো বিষয়টি সত্য না মিথ্যা তা জেনে যাবেন।’

Advertisement