Beta

ভাইরাল ভিডিওর মেয়েটি আমি নই : শাহনাজ সুমি

১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০১

মডেল ও অভিনেত্রী শাহনাজ সুমি। ছবি : সংগৃহীত

গত বছর নারী দিবসে জুঁই প্রচারিত বিজ্ঞাপনের আলোচিত একটি সংলাপ ছিল, ‘আরো ছোট করে দিন, যাতে এভাবে আর ধরা না যায়।’ সংলাপটি ছিল শাহনাজ সুমির মুখে। বিজ্ঞাপনটি করে ব্যাপক পরিচিতি পান সুমি। এ ছাড়া ২০১৬ সালে চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ের সিজন থ্রিতে সেরা ১০-এ ছিলেন তিনি। গতকাল ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে সুমি জানান, তাঁর নাম ব্যবহার করে একটি মেয়ের আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল করা হয়েছে। এনটিভি অনলাইনের কাছে তিনি দাবি করেন, ভাইরাল হওয়া ভিডিওর মেয়েটি তিনি নন।

এনটিভি অনলাইন : কেমন আছেন?

শাহনাজ সুমি : ভালো নেই। একটু চিন্তিত। কারণ, আমার নামে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

এনটিভি অনলাইন : বিষয়টা একটু খুলে বলবেন?

শাহনাজ সুমি : ‘সোনার পাখি, রুপার পাখি’ শিরোনামে একটি ধারাবাহিক নাটকে আমি অভিনয় করেছিলাম। নাটকে আমার চরিত্রের নাম ছিল বিজলী। নাটকটি খুবই জনপ্রিয় হয়, বিশেষ করে প্রবাসী দর্শকদের কাছে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় আমি দেখছি, একটা মেয়ের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওর ক্যাপশনে আমার নাম লেখা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, এটা বিজলী চরিত্রের মেয়েটি। এই ভিডিওটি এক বছর আগেও আমি দেখেছিলাম। কিন্তু বিষয়টাকে আমি পাত্তা দিইনি, কারণ ভিডিওটি আমার নয়। গত ১০ তারিখ থেকে ভিডিওটি এত বেশি ভাইরাল হয়েছে যে আমার পরিবারের মানুষজন এটা নিয়ে বিচলিত। এমনকি আমিও। এ কারণে আমি স্ট্যটাসে লিখেছি, ‘অন্য মানুষের নাম ব্যবহার করে ভুল ভিডিও ও মিথ্যা অপপ্রচার ছড়ানোর সময় নিজের মা-বোন-আত্মীয় এবং পরিবারের মুখগুলোর দিকে একবার তাকান। দয়া করে ১০০ ভাগ নিশ্চিত না হয়ে আরেকজনের নাম ব্যবহার করা কোনো কিছু শেয়ার দেবেন না এবং অন্যকে উৎসাহিত করুন যেন এই মিথ্যায় তারা নিজেরা না জড়ায়। আপনার অহেতুক মিথ্যা অপপ্রচার একটি পরিবারের জীবনে বিভীষিকা নিয়ে আসতে পারে! কাজেই দয়া করে ভুলভাল ভিডিওতে লাইক ও শেয়ার দেওয়া বন্ধ করুন।’ আসলেই ভাইরাল ভিডিওর ফর্সা মেয়েটি আমি নই। মেয়েটি ফর্সা আর আমি কালো। আমার মুখে দাগ আছে। তিল আছে, কিন্তু ওই মেয়েটির মুখে এসব নেই। হয়তো চেহারায় অনেকে মিল খুঁজে পেয়েছেন। এখন আমার মতো কমন ফেস যদি অনেকের হয়, সেই দায় কি আমার?

এনটিভি অনলাইন : এ বিষয়ে আইনগত কোনো পদক্ষেপ কি নিয়েছেন?

শাহনাজ সুমি : প্রাথমিকভাবে ডিবি পুলিশের সঙ্গে কথা বলেছি। সোশ্যাল মিডিয়ায় যারা এসব আমার নামে অপপ্রচার করছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে চাই। কারণ আমাকে অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। অনেক পরিচিজন আমাকে ফোন দিয়ে বলছেন, ‘এই কাজটা তুমি কীভাবে করলা?’ অথচ যে মেয়েটির ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, তাকে আমি চিনিও না। যাহোক, এখন একটা স্ট্যাটাস ও ভিডিও বার্তায় কিছু বলার পর অনেকে তাঁদের ভুল বুঝতে পেয়েছেন। আবার এখনো অনেকে ভাবছেন, এটা আমিই। এটা সত্যিই আমার জন্য বিব্রতকর।

এনটিভি অনলাইন : শেষ প্রশ্ন। এখন কী নিয়ে ব্যস্ত?

শাহনাজ সুমি : ঈদের জন্য বিশেষ কোনো কাজ করতে পারিনি। কারণ, আমি পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। কিছুদিন আগে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবির শুটিং শেষ করেছি।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement