Beta

লিবিয়ায় সরকার ও বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সংঘর্ষে নিহত ২১

০৮ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩২

অনলাইন ডেস্ক

লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির সন্নিকটে সরকার ও বিদ্রোহী গোষ্ঠীর মধ্যে হওয়া এক সংঘর্ষে ২১ ব্যক্তি নিহত ও ২৭ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

আজ সোমবার বিবিসির প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ কথা জানা যায়।

শনিবারের সংঘর্ষে নিহতদের মধ্যে রেড ক্রিসেন্টের এক চিকিৎসকও রয়েছেন। বিদ্রোহী গোষ্ঠীর নেতা হাফতার জানান, তাঁরা ১৪ জন সহযোদ্ধা হারিয়েছেন।

সংঘর্ষের পর হতাহতদের ও নিরীহ জনসাধারণকে সরিয়ে নিতে জাতিসংঘ দুই ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির আবেদন জানালেও তা অগ্রাহ্য করে সংঘর্ষ চলতে থাকে।

বিবিসি জানায়, জেনারেল খলিফা হাফতারের নেতৃত্বে রাজধানী দখলের উদ্দেশ্যে পূর্ব দিক থেকে বিদ্রোহী গোষ্ঠী এগিয়ে আসছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল-সিরাজ জেনারেল হাফতারকে ক্যু করার দায়ে অভিযুক্ত করেছেন।

এদিকে, দ্রুত লিবিয়ায় চলমান এ সংঘর্ষ ও অস্থিতিশীলতা বন্ধ করে বিবাদরত অংশগুলোকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র সচিব মাইক পম্পেও।

এক বিবৃতিতে পম্পেও জানান, ত্রিপোলির কাছাকাছি সংঘর্ষে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। ত্রিপোলির বিরুদ্ধে একপাক্ষিক সামরিক অভিযান সাধারণ মানুষের জীবনকে হুমকির মুখে ফেলছে। একই সঙ্গে তা লিবিয়ানদের জন্য নিরাপদ আগামীর সম্ভাবনাকেও নস্যাৎ করছে।

লিবিয়ায় চলমান রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতায় উদ্ভূত নিরাপত্তা হুমকির ফলে আন্তর্জাতিক মহল ক্রমাগত নিজেদের লোকজন সরিয়ে নিচ্ছে।

২০১১ সালে দীর্ঘদিনের শাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির পতনের পর থেকেই লিবিয়ায় সহিংসতা বিরাজ করছে। দেশটি বর্তমানে বহুধাবিভক্ত ও রাজনৈতিকভাবে অস্থিতিশীল।

Advertisement