Beta

মসুলে আইএসের পতন ঘোষণা

১১ জুলাই ২০১৭, ০৯:৩০

বিবিসি
ইরাকের মসুল শহরে আনুষ্ঠানিকভাবে আইএসের পতন ঘোষণা করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল-আবাদি। ছবি : টুইটার

ইরাকের মসুল শহরে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) পতনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল-আবাদি।

মসুলে ইরাকের পতাকা উড়িয়ে সেনাবাহিনীর বিজয় ঘোষণা করেন আবাদি।

বিজয় ঘোষণার সময় আবাদি বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদের মিথ্যার সাম্রাজ্যের ব্যর্থতা, পতন ও সমাপ্তি ঘোষণা করলাম।’

সামনে আরো প্রতিকূলতা আসছে উল্লেখ করে আবাদি বলেন, ‘আমাদের সামনে আরেকটি কাজ রয়েছে। সেটি হলো স্থিতিশীলতা বজায় রাখা, সবকিছু নতুনভাবে সৃষ্টি করা ও দায়েশের (আইএস) ঘাঁটিগুলো গুঁড়িয়ে দেওয়া।’

মসুল নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে উল্লেখ করে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ইরাকি বাহিনী জানায়, শহরটি থেকে বিস্ফোরকদ্রব্য সরিয়ে ফেলতে হবে। এখনো সেখানে আইএস সদস্যরা লুকিয়ে থাকতে পারে।    

ইরাকি বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মসুলে এখনো কিছু আইএস সদস্য থাকতে পারে। তারা পরিবার নিয়ে সেখানে অবস্থান করছে। পরিবারের নারী ও শিশুদের মানববর্ম হিসেবে তারা ব্যবহার করতে পারে।

স্থানীয় সময় রোববার ইরাকের সেনাবাহিনী ও জনগণকে স্বাগত জানাতে মসুলে সফরে যান আবাদি। আবাদি সেখানে পৌঁছানোর পর রাস্তায় রাস্তায় বিজয় মিছিল নামে, তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়।

ইরাকি সেনারা মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীর সহায়তায় ২০১৬ সালের ১৭ অক্টোবর থেকে মসুল পুনরুদ্ধারের লড়াই শুরু করেছিল। তাদের সঙ্গে এ যুদ্ধে যোগ দেয় কুর্দিশ পেশমেরগা যোদ্ধা, সুন্নি ও শিয়াদের কয়েকটি গোষ্ঠী।

নয় মাসব্যাপী যুদ্ধে শহরটি প্রায় ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। এ ছাড়া শহর ছাড়ে  নয় লাখ ২০ হাজার জনের বেশি মানুষ।

২০১৪ সালে মসুল দখল করে গ্র্যান্ড আল-নুরি মসজিদ থেকে খেলাফতের ঘোষণা দিয়েছিল আইএস। এর পর থেকে ইরাকে মসুলকে আইএসের কার্যত রাজধানী বিবেচনা করা হতো।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement