Beta

ওয়ানডে সিরিজে বদলে গেল শ্রীলঙ্কার চেহারা

১৭ মার্চ ২০১৯, ১২:৩২

স্পোর্টস ডেস্ক

কে বলবে, এই শ্রীলঙ্কা দলটাই কিছুদিন আগে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিল! প্রথম এশিয়ান দল হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকাকে তাদের মাটিতেই ২-০ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজে পরাজিত করে ক্রিকেট বিশ্বকে চমকে দেয় লঙ্কানরা। অথচ ওয়ানডে সিরিজে টানা পাঁচ ম্যাচ হেরে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পড়তে হলো তাদের। শনিবার কেপটাউনের নিউল্যান্ডসে ডাকওয়ার্থ-লুইস মেথডে প্রোটিয়াদের কাছে ৪১ রানে হেরে যায় লাসিথ মালিঙ্গার দল। 

কেপটাউনে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে শ্রীলঙ্কা। ইনিংসের শুরুতেই দলীয় ১৪ রানে দুই ওপেনারকে হারায় লঙ্কানরা। তবে মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে কুশল মেন্ডিস ইনিংসকে এগিয়ে নিতে থাকেন। দলীয় সর্বোচ্চ ৫৬ রান করে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তিনি। একপর্যায়ে ১৬১ রানে সপ্তম উইকেট পড়ে যায় সফরকারীদের। কিন্তু লোয়ার অর্ডারের ইসুরু উদানা ও প্রিয়ামল পেরেরার মাঝারি দুটি ইনিংসে দুইশ ছাড়ায় তারা। শেষ পর্যন্ত ইনিংসের তিন বল বাকি থাকতে ২২৫ রানে অলআউট হয় মালিঙ্গার দল। প্রোটিয়াদের হয়ে কাগিসো রাবাদা তিনটি এবং ইমরান তাহির ও অ্যানরিচ নরজে দুটি করে উইকেট নেন।          

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই কুইন্টন ডি কককে হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসির সঙ্গে ৭০ রানের জুটি গড়ে দলকে শক্ত ভীতের ওপর দাঁড় করান এইডেন মার্করাম। ৭৫ বলে সাতটি চারে অপরাজিত ৬৭ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন মার্করাম। ২৮ ওভার শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর যখন দুই উইকেটে ১৩৫ রান, তখন ফ্লাডলাইটের বিভ্রাটের কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। ডাকওয়ার্থ-লুইস মেথডে ৪১ রানে বিজয়ী ঘোষণা করা হয় তাদের। চমৎকার ইনিংসের জন্য ম্যাচসেরা খেলোয়াড় হন এইডেন মার্করাম। আর পুরো সিরিজে একটি সেঞ্চুরি ও তিনটি অর্ধশতকের ইনিংস খেলা কুইন্টন ডি কক হন সিরিজসেরা খেলোয়াড়।

Advertisement