Beta

ফ্রেঞ্চ ওপেন

শেষ ষোলোর লড়াইয়ে মুখোমুখি সেরেনা-শারাপোভা

০৩ জুন ২০১৮, ১৩:৫০ | আপডেট: ০৩ জুন ২০১৮, ১৩:৫৮

স্পোর্টস ডেস্ক

গত বছর সন্তান জন্ম দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামস। এর পর থেকে টেনিসে অনিয়মিত এই তারকা এবার ফ্রেঞ্চ ওপেনে জুলিয়া জর্জেসকে হারিয়ে শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছেন। অন্যদিকে, দীর্ঘদিন ডোপিংয়ের কারণে কোর্টের বাইরে ছিলেন রাশান তারকা মারিয়া শারাপোভা। গত বছর ওয়াইল্ড কার্ড না পাওয়ায় খেলতে পারেননি তিনি। এ বছর টুর্নামেন্টে রাশান তারকা ক্যারোলিনাকে হারিয়ে নিশ্চিত করেছেন কোয়ার্টার ফাইনালের রাউন্ড। আগামী সোমবার কোয়ার্টার ফাইনালের রাউন্ডে শারাপোভা ও সেরেনা সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে একে অপরের মুখোমুখি হবেন।

এর আগে সেরেনা ও শারাপোভা ২১ বার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিলেন। অবশ্য মুখোমুখি  লড়াইয়ে একক আধিপত্য মার্কিন তারকারই। ৩১ বছর বয়সী রাশান তারকার বিপক্ষে শেষ  ১৮ বারের লড়াইয়ে প্রতিবারই  জিতেছেন ২৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী উইলিয়ামস। তাই রোল্যান্ড গ্যারোসের মাঠের লড়াইয়ে কোনো অঘটন না ঘটলে সেরেনার আধিপত্যই থাকবে।

তবে মাঠের চেয়ে মাঠের বাইরে এ দুই তারকার স্নায়ুযুদ্ধ চলছে। কিছুদিন আগে মারিয়া শারাপোভার আত্মজীবনীর বই বের হয়েছে। যেখানে ২০০৪ সালে ইংল্যান্ডের  উইম্বলডনে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ম্যাচে সেরেনার কান্নার ব্যাপারটা তুলে ধরা হয়েছে। ওই টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচে সেরেনা শারাপোভার কাছে হেরে শিরোপা খুইয়েছেন। ম্যাচের পর মার্কিন তারকা লকার রুমে কান্নায় ভেঙে পড়েন। এই ব্যাপারটি বইয়ে প্রকাশিত হয়। সেরেনা এমন ঘটনায় বেশ অসন্তুষ্ট। তিনি মনে করেন, লকার রুমের ব্যাপারটিকে এভাবে প্রকাশ্যে না এনে একজন নারী হিসেবে আরেকজন নারীকে উৎসাহিত করা উচিত ছিল। শিরোপার এত কাছাকাছি গিয়েও হেরে যাওয়ায় কান্নাটা স্বাভাবিক ছিল বলেই মনে করেন এই মার্কিন তারকা। তবে এ ঘটনা ম্যাচে প্রভাব ফেলবে না বলেও তিনি আশ্বস্ত করেন।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement