Beta

পর্তুগালের চলচ্চিত্র মেলায় বাংলাদেশের ছবি

১৫ নভেম্বর ২০১৬, ২১:৪৩

অনলাইন ডেস্ক

আটলান্টিকের পাড়ের ইউরোপীয় দেশ পর্তুগালে প্রথমবারের মতো আয়োজন করা হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার চলচ্চিত্র মেলা ‘মোশত্রা দে সিনেমা সুল আসিয়াতিকো’। ইউরোপে দক্ষিণ এশিয়ার চলচ্চিত্রকে তুলে ধরা, দক্ষিণ এশীয় প্রবাসীদের স্বদেশের সিনেমা দেখার সুযোগ সৃষ্টি এবং ইউরোপ ও এশিয়ার মাঝে চলচ্চিত্র সেতু নির্মাণ করতে এ আয়োজন করছে পর্তুগালে অবস্থিত আন্তর্জাতিক ইনডিপেনডেন্ট ফিল্ম প্রোডাকশন কোম্পানি ভিলা দু সিনেমা। রাজধানী শহর লিসবনে আয়োজিত এ চলচ্চিত্র মেলায় দেখানো হবে ভারত, নেপাল ও বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সময়ের সিনেমা।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, পর্তুগালের শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয় লুসোফুনা ইউনিভার্সিটি, লিসবনের জুন্তা ফ্রেগজিয়া আরইয়ুস ও লিসিও কামুয়েসের সহযোগিতায় আয়োজিত আগামী বছরের জানুয়ারিতে বাংলাদেশের নির্বাচিত চলচ্চিত্র দিয়ে শুরু হচ্ছে এ মেলা।

বাংলাদেশের সিনেমার পর ফেব্রুয়ারিতে প্রদর্শিত হবে নেপালের এবং মার্চে ভারতের সিনেমা। প্রতি মাসে তিনদিন করে চলবে প্রতিটি দেশের চলচ্চিত্র প্রদর্শনী। পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়ার তরুণ নির্মাতাদের উৎসাহিত করতে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের সঙ্গে দেখানো হবে তাদের নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। আগামী ৩০ নভেম্বর পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও ১০ ডিসেম্বর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র জমাদানের শেষ দিন। ভিলা দু সিনেমার ওয়েবসাইট www.viladocinema.com -এর হোম পেইজে গিয়ে সরাসরি আবেদনপত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জমা দেওয়া যাবে।

চলচ্চিত্র মেলার পর বছর শেষে ভিলা দু সিনেমা পর্তুগালে আয়োজন করবে সাউথ এশিয়ান ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-লিসবন। যেখানে দক্ষিণ এশীয় দেশের ২০১৭ সালে নির্মিত চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। পাশাপাশি এশিয়ার সৃজনশীল তরুণ নির্মাতাদের জন্য থাকবে চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা।

ভিলা দু সিনেমার প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা সেসিলিয়া বান্দেইরা বলেন, ‘দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর অনেক ভালো ভালো চলচ্চিত্র দেখার সুযোগ এখানে খুব বেশি নেই। অথচ একদিকে ইউরোপ ও আন্তর্জাতিক দর্শক অন্যদিকে প্রচুর সংখ্যক এশীয় কমিউনিটি ওই অঞ্চলের সিনেমা দেখতে খুব আগ্রহী। আমরা চাই, এ আয়োজনের মাধ্যমে দর্শক তাদের পছন্দের ছবি দেখবে এবং ইউরোপ ও এশিয়ার মাঝে একটি চলচ্চিত্র সেতু নির্মিত হোক। এ ছাড়া ভিলা দু সিনেমা এশিয়ান দেশগুলোর সঙ্গে সিনেমার কো-প্রোডাকশন, পোস্ট প্রোডাকশন ও ইউরোপে শুটিং লোকেশনের ব্যবস্থা করবে।’  

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement