Beta

দক্ষিণ কোরিয়ায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৫৯

মনির হোসেন পাটোয়ারী, দক্ষিণ কোরিয়া

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ স্পোর্টস অ্যান্ড কালচারাল ইন কোরিয়ার উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় কিম্পু ফরেন সেন্টারের হলরুমে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল।

বাংলাদেশ স্পোর্টস অ্যান্ড কালচার ইন কোরিয়ায় সভাপতি কাজী শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম।

বিশেষ অতিথি ছিলেন কিম্পু নগরীর মেয়র জং হা ইয়ং, বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর মোহাম্মদ মাসুদ রানা চৌধুরী ও কিম্পু ফরেন সাপোর্ট সেন্টারের প্রধান চে ইয়ং ইল।

রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রেক্ষাপট তুলে ধরতে গিয়ে বলেন, ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলনে ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’ স্লোগানে ঢাকার রাস্তায় নেমে আসা বাঙালি ছাত্র-জনতার ওপর পাকিস্তানি সরকারের নিপীড়নবাদী পুলিশের নির্বিচারে গুলিবর্ষণে শহীদ হওয়া ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধার সঙ্গে বীর বাঙালি আজীবন স্মরণ করবে। এ সময় মাতৃভাষার অধিকার ও মর্যাদা রক্ষায় বাঙালির ত্যাগ ও আত্মদান কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন রাষ্ট্রদূত।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার ভাষা ও সংস্কৃতির দারুণ মেলবন্ধন রয়েছে। মাতৃভাষার জন্য যেমন আমরা রক্ত দিয়েছি, তেমনি কোরিয়ানরা কোরিয়ান হাংগলের জন্য অনেক লড়াই-সংগ্রাম করেছেন। ভাষার এই মেলবন্ধনের ওপর দাঁড়িয়ে মানুষে মানুষে সুসম্পর্ক গড়ে তোলা সম্ভব।

মেয়র জং হা ইয়ং বলেন, ‘কোরিয়া ও বাংলাদেশ বন্ধুপ্রতিম দেশ। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের এই অনুষ্ঠানে আসতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। নিজেদের ভাষার জন্য জীবন বলিদান করে বাঙালিরা তাদের আত্মমর্যাদা ও গৌরব অর্জন করেছে।’ মেয়র কিম্পুতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

কাউন্সিলর মোহাম্মদ মাসুদ রানা চৌধুরী বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের আপামর মানুষের মহত্তম গৌরবের দিন। দিবসটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পৃথিবীব্যাপী স্বীকৃত। দিনটি বাঙালি জনগণের ভাষা আন্দোলনের গৌরবোজ্জ্বল স্মৃতিবিজড়িত দিন।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে ই পি এস ভিসা থেকে ই-৭ ফোর, এফ টু সিক্স ভিসাপ্রাপ্তদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানটি হয়ে ওঠে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির মানুষের মিলনমেলা ও কোরিয়ান নাগরিকদের সঙ্গে সেতুবন্ধনের বড় প্ল্যাটফর্ম।

অনুষ্ঠানে কিম্পু শহরের মেয়র জং হা ইয়ং ও কিম্পু ফরেন সাপোর্ট সেন্টারের প্রধান চে ইয়ং ইলকে বাংলাদেশি উত্তরীয় পরিয়ে দেন রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম।

অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন সংগঠনের উপদেষ্টা তাজুল ইসলাম টনি, আব্দুল হামিদ, সিনিয়র সহসভাপতি মোমেন বায়েজ, সহসভাপতি ফরিদ উদ্দিন, এনামুল, রিয়াদ, জসীমসহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ তারেক, সহযোগিতায় ছিলেন ওমর ফারুক হিমেল।

এ ছাড়া ভাষা দিবসের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ায় বিভিন্ন সামাজিক ও কমিউনিটি সংগঠন ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং কোরিয়ার গুরুত্বপূর্ণ নেতৃবৃন্দ।

Advertisement