Beta

কোয়েল খেতে এসে ধরা পড়ল মেছোবাঘ

০৬ জানুয়ারি ২০১৮, ২২:০২

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বড় ভবানীপুর গ্রামে কোয়েল পাখির খামারে বিরল প্রজাতির এই মেছোবাঘ ধরা পড়ে। ছবি : এনটিভি

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বড় ভবানীপুর গ্রামে কোয়েল পাখির খামারে শিয়াল ধরার ফাঁদে ধরা পড়েছে বিরল প্রজাতির একটি বড় মেছোবাঘ। এরপর থেকেই মেছোবাঘকে এক নজর দেখতে জড়ো হয় হাজারো গ্রামবাসী।

গতকাল শুক্রবার গভীর রাতে বড় ভবানীপুর গ্রামের মো. ইকবাল হোসেন খানের কোয়েল পাখির খামারে ধরা পড়ে মেছোবাঘটি। পরে আজ সকালে বাড়ির লোকজন ঘুম থেকে উঠে দেখেন, আটকা পড়ে আছে বড় ধরনের এই মেছোবাঘটি।

এর আগে ধরা পড়ার আগে মেছোবাঘের হুঙ্কারে আতঙ্কি হয়ে চিৎকার শুরু করে গ্রামবাসী। লাঠিসোঁটা নিয়ে গ্রামের রাস্তায় ছোটাছুটি করেন তারা। একপর্যায়ে জানাজানি হয় ইকবাল খানের খামারে একটি মেছোবাঘ ধরা পড়েছে। এরপর থেকেই এক নজর মেছোবাঘ দেখতে জড়ো হয় হাজারো গ্রামবাসী।

এলাকাবাসী জানায়, বড় ভবানীপুর গ্রামে প্রচুর পরিমাণে বড় বড় বাঁশঝাঁড় ও বিভিন্ন গাছের বাগান রয়েছে। তাই বিভিন্ন ধরনের বন্যপ্রাণী এই এলাকায় বসবাস করে। গ্রামবাসী প্রথমে ধারণা করেছিল, এটি চিতা বাঘ। কিন্তু পরে জানতে পারে এটি মেছোবাঘ। মেছোবাঘ ধরা পড়ায় গ্রামের ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা বাগানের পাশ দিয়ে বিদ্যালয়ে যেতে ভয় পাচ্ছে।

রাজবাড়ীর বন বিভাগের কর্মকর্তা মো. ইউনুস আলী বলেন, ‘বাঘ ধরার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি এটি একটি মেছোবাঘ। এই প্রজাতির বাঘ মানুষের কোনো ক্ষতি করে না। পুকুরের মাছ, ব্যাঙ, সাপ খেয়ে জীবনধারণ করে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় এই প্রাণীগুলোর প্রয়োজন আছে। আমরা মেছোবাঘটি উদ্ধার করে লোকালয় থেকে দূরে নিয়ে একটি বাগানে অবমুক্ত করব।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement