Beta

স্তন্যদানে বাধার প্রতিবাদে ‘গণস্তন্যদান’

২৫ মে ২০১৫, ১২:৩৩

অনলাইন ডেস্ক

প্রচণ্ড গরমে রেস্তোরাঁয় বসে তৃষ্ণার্ত শিশুটিকে বুকের দুধ পান করাচ্ছিলেন একজন মা। কিন্তু এটিকেই কি না অগ্রহণযোগ্য আচরণ মনে করে বাধা দেন রেস্তোরাঁর নিরাপত্তারক্ষী। এতে চটে যান বেশ কয়েকজন নারী। ঘটনার দুই দিন পর একই রেস্তোরাঁয় নিজ নিজ শিশুকে স্তন্যদান করেছেন তাঁরা। ঘটনাটি হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টের একটি রেলস্টেশনের পাশে ম্যাকডোনাল্ডসের একটি রেস্তোরাঁয়।

বিবিসির খবরে বলা হয়, গত বুধবারের ওই ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার ঝড় উঠেছে। সমালোচনার মুখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রেস্তোরাঁটি।

ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে এরিকা স্মিডট নামের ওই নারী বলেন, ‘আমি রেস্তোরাঁয় বোনের জন্য অপেক্ষা করছিলাম। সে ট্রেনে করে আসছিল।’ তিনি বলেন, ‘প্রকাশ্যে স্তন্যদান যাতে না করতে হয়, সে জন্য বের হওয়ার আগেই আমি বাচ্চাকে দুধ পান করাই। কিন্তু তখন তাপমাত্রা ছিল ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাচ্চার গা গরম ছিল। সে খুব তৃষ্ণার্ত ছিল। এমন অবস্থায় সকাল ৯টার দিকে আমি রেস্তোরাঁয়  যাই। এরপর আমি রেস্তোরাঁর একটি স্থানে বসি যাতে কেউ বিরক্ত বোধ না করে। এ সময় আমি রেস্তোরাঁর পরিচারিকার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাই। তিনি কোনো আপত্তি করেননি।’

ওই নারী আরো জানান, স্তন্যদান শুরুর পর পরই একজন নিরাপত্তারক্ষী এসে বলেন, রেস্তোরাঁয় এ ধরনের কাজ গ্রহণযোগ্য নয়।

ওই স্ট্যাটাস দেওয়ার পর পরই সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে তা সয়লাব হয়ে যায়।  প্রতিবাদে একদল নারী প্রকাশ্যে শিশুদের স্তন্যপান করাতে শুরু করেন। এ সময় বেশ কয়েকজন আলোকচিত্রীও জড়ো হন।

ওই ঘটনার পর দুঃখ প্রকাশ করে ম্যাকডোনালাডসের পক্ষ থেকে বলা হয়, 'পরিবার-বান্ধব' ওই রেস্তোরাঁয় নারীদের স্তন্যদানে বাধা নেই। বিষয়টির তদন্ত হচ্ছে।

বার্থহাউস ফাউন্ডেশন নামের একটি সংগঠনের কর্মী ও তিন সন্তানের মা এরিকা স্মিডট বিবিসিকে বলেন, হাঙ্গেরিতে খুব কম নারীই  প্রকাশ্যে তাদের বাচ্চাদের স্তন্যপান করান। তাদের ভয়, এ জন্য তাদের হয়রানি বা অপমানের শিকার হতে হবে। কিন্তু প্রথমবারের মতো নারীরা সমবেত হয়ে এ ব্যাপারে তাদের সংহতি প্রকাশ করার বিষয়টিকে দারুণ মনে করছেন তিনি।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement