Beta

গাইতে গাইতে মারা গেলেন কঙ্গোর শিল্পী

২৫ এপ্রিল ২০১৬, ০৯:২৪

অনলাইন ডেস্ক
পাপা ওয়েম্বা। ছবি : রয়টার্স

কনসার্টে গান পরিবেশন করতে করতে মেঝেয় লুটিয়ে পড়লেন শিল্পী। এরপর সহশিল্পীরা তাঁকে ধরাধরি করে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু তার আগেই মারা যান কঙ্গোর জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী পাপা ওয়েম্বা। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৬ ব্ছর।

আইভরি কোস্টের রাজধানী আবিদজানে একটি কনসার্টে যোগ দিয়েছিলেন পাপা। ভিডিওতে দেখা যায়, কনসার্টের মিউজিক বাজছে আর স্টেজের সামনে নাচছেন শিল্পীরা। এর পেছনে হঠাৎ লুটিয়ে পড়েন পাপা ওয়েম্বা। সঙ্গে সঙ্গে তাঁর কাছে ছুটে যান শিল্পীরা।

আফ্রিকা, কিউবা ও পশ্চিমা সঙ্গীতের সংমিশ্রণে পাপা ওয়েম্বার সঙ্গীত একটি নতুন মাত্রা পেয়েছিল। তিনি সারা বিশ্ব ভ্রমণ করেছেন। ব্রিটিশ শিল্পী পিটার গ্যাব্রিয়েলের সঙ্গে যৌথ রেকর্ড বেরিয়েছে তাঁর।

বিবিসির আফ্রিকান মিউজিক অ্যাম্বাসাডর ডিজে এডু বলেন, ‘আফ্রিকার সঙ্গীতে তাঁর প্রভাব ফেলা কুতির মতোই।’ ফেলা কুতি আফ্রিকার কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী।

শনিবার খুব সকালের দিকে সঙ্গীতশিল্পী মারা যান। তাঁর মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। আবিদজানের ইভোসপ মর্গের একজন মুখপাত্র জানান, হাসপাতালে আনার আগেই শিল্পীর মৃত্যু হয়েছে।

১৯৪৯ সালের জন্ম নেওয়া ওয়েম্বার আসল নাম ছিল শুঙ্গু ওয়েম্বাদিও পেনে কিকুম্বা। ধর্মীয় গায়কদলের সঙ্গে তাঁর সঙ্গীতে হাতেখড়ি। কঙ্গোর রুম্বা সঙ্গীতের আধুনিকায়নে তাঁর অবদান রয়েছে।

পাপার মৃত্যুতে কঙ্গোর প্রেসিডেন্ট জোসেফ কাবিলা গভীর শোক জানিয়েছেন। দেশটির সংস্কৃতিমন্ত্রী বাউদুইন বানজা মুকালে বলেন, পাপার মৃত্যু কঙ্গো ও পুরো আফ্রিকার জন্য বিশাল ক্ষতি।

 

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement