Beta

ফুটবল স্টেডিয়াম বদলে গেল সবুজ বনে

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:৫১

অনলাইন ডেস্ক

মধ্য ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়ার একটি ফুটবল স্টেডিয়াম বদলে গেছে ঘন সবুজ বনে। ফুটবল খেলার মাঠে এখন দাঁড়িয়ে আছে প্রায় ৩০০ গাছ। অভিনব এই বনায়নের কারিগর ক্লস লিটম্যান। তিনি পেশায় একজন শিল্পী।

জলবায়ু পরিবর্তন ও বনাঞ্চল ধ্বংসের প্রতিবাদস্বরূপ অভিনব এই বুদ্ধি আঁটেন লিটম্যান। তবে স্থায়ীভাবে বনে রূপান্তরিত হয়নি মাঠটি। বনায়নের বিষয়ে মানুষকে সচেতন করতে সাত সপ্তাহের জন্য স্টেডিয়ামকে অস্থায়ীভাবে বনে রূপান্তরিত করেছেন লিটম্যান। এটি তাঁর একটি শৈল্পিক প্রকল্প (ইনস্টলেশন)। গণমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

কেবল নির্দিষ্ট কিছু স্থানে প্রকৃতি দৃশ্যমান—এমন একটি কল্পিত পৃথিবীর ছবি দেখে স্টেডিয়ামকে বনে রূপান্তরে অনুপ্রাণিত হন লিটম্যান। ১৯৭০ সালে ভিয়েনার স্থপতি ম্যাক্স পেইন্টনারের আঁকা একটি দেখা যায়, একটি স্টেডিয়ামের মাঝখানে মাঠের পরিবর্তে রয়েছে কিছু গাছ। আর তা দেখতে স্টেডিয়ামে ভিড় করেছেন দর্শক। ছবিটির শিরোনাম দেওয়া হয়—‘প্রকৃতির অনিঃশেষ আকর্ষণ’।

পেইন্টনারের আঁকা ছবি দেখে মুগ্ধ লিটম্যান সেটা কিনতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ছবিটি ততদিনে মার্কিন এক শিল্প সংগ্রহশালা কর্তৃপক্ষ কিনে নিয়েছে। 

লিটম্যান বলেন, ‘ছবিটি যখন কিনতে পারলাম না, তখনই সিদ্ধান্ত নিলাম ছবিটিকে বাস্তবে রূপ দেব।’ তিন দশক পর সে কাজে সফল লিটম্যান তাঁর ইন্সটলেশনের নাম দিয়েছেন : ‘বনের জন্য – প্রকৃতির অনিঃশেষ আকর্ষণ’।

৩০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার ওরদারসি ফুটবল স্টেডিয়ামের অস্থায়ী বনটি তৈরি করতে লিটম্যান নার্সারি থেকে ২৯৯টি গাছ এনেছেন। ইন্সটলেশনটি শেষ হয়ে যাওয়ার পর স্টেডিয়ামের কাছেই একটি বনায়ন প্রকল্পের অধীনে গাছগুলো স্থায়ীভাবে রোপণ করা হবে।

Advertisement