Beta

ইরানকে মোকাবিলায় মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের রণতরী ও বোমারু টাস্কফোর্স

০৬ মে ২০১৯, ২২:১৩

অনলাইন ডেস্ক
২০০৪ সালে তোলা ইউএসএস আব্রাহাম লিংকনের ছবি। এটি এখন ইউরোপ থেকে ইরানের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ছবি :সংগৃহীত

ইরানকে ‘স্পষ্ট এবং নির্ভূল একটি বার্তা’ দিতে মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধবিমানবাহী রণতরী মোতায়েন করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বিবিসির এক খবরে এমনটিই বলা হয়েছ।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেছেন, বহু উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডের জবাবে এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কোনো আক্রমণ হলে যাতে শক্ত জবাব দেওয়া যায়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মার্কিন কূটনীতিক জানান, যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর ওপর হামলার আশঙ্কায় এই রণতরী মোতায়েন করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে জন বোল্টন বলেন, ইরানের প্রতি ‘স্পষ্ট এবং নির্ভুল বার্তা’ আকারে ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ডের নিয়ন্ত্রণে ‘ইউএসএস আব্রাহাম লিংকন ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপ’ এবং একটি বোমারু টাস্ক ফোর্স মধ্যপ্রাচ্যে মোতায়েন করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থে বিঘ্ন ঘটালে অথবা বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্রগুলোর ওপর আঘাত হানা হলে কঠোর জবাব দেওয়া হবে।

‘যুক্তরাষ্ট্র ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ চায় না, তবে ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড বাহিনী বা ইরানি সামরিক বাহিনীগুলোর সম্ভাব্য হামলার জবাব দিতে আমরা পূর্ণাঙ্গভাবে প্রস্তুত, বলেন বোল্টন।

এর আগে শনিবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ বলেন, ইরান যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যুদ্ধে জড়াতে চায় না। তবে ইরানের প্রাণশক্তি পারস্য উপসাগরে কোনো ধরনের খবরদারি মানবে না ইরান।

আলজাজিরাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জাভেদ বলেন, আমরা স্পষ্টভাবে জানাচ্ছি পারস্য উপসাগর এবং হরমুজ প্রণালী আমাদের প্রাণ। আমাদের জীবনধারণ এগুলোর ওপর নির্ভরশীল। আমরা এটাকে সব দেশের জন্য মুক্ত ও নিরাপদ রাখতে চাই।    

সাম্প্রতিককালে কয়েকটি দেশের সঙ্গে যুদ্ধমহড়ায় অংশ নিতে রণতরীটি ইউরোপে ছিল। এপ্রিলের শেষে মধ্যপ্রাচ্যের দিকে রওনা দেয় রণতরীটি।

Advertisement