জঙ্গি দমনে ব্যর্থ পাকিস্তানের সহায়তা বন্ধ করল যুক্তরাষ্ট্র

০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:০৬

অনলাইন ডেস্ক

ধর্মীয় উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠী দমনে ব্যর্থতার কারণে পাকিস্তানের জন্য বরাদ্দ করা তিনশ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা তহবিল বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। 

‘বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার সহায়তা নেওয়ার পরও পাকিস্তান যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ভাঁওতাবাজি করছে’—এর আগে এমন অভিযোগ তুলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার সরাসরি সহায়তা বন্ধের ঘোষণা এলো।  

পেন্টাগনের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল কোনে ফকনারের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী এই অর্থ অন্য কোনো ‘জরুরি অগ্রাধিকার’ খাতে ব্যয় করবে।

বড় রকমের এ স্থগিতাদেশ কার্যকর করতে কংগ্রেসের (সংসদ) অনুমোদন লাগবে।

যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রধান মিত্র পাকিস্তান নিজ ভূখণ্ডে হাক্কানি নেটওয়ার্ক ও আফগান তালেবানসহ বিভিন্ন জঙ্গিগোষ্ঠীর তৎপরতা ঠেকাতে ব্যর্থ বলে দেশটির সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র বিভাগ।

গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে ফকনার বলেন, ‘সব ধরনের জঙ্গিগোষ্ঠী দমনে পাকিস্তানকে কঠোর হওয়ার ব্যাপারে আমরা চাপ প্রয়োগ করতে চাই।’

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র সচিব মাইক পম্পেও সাক্ষাৎ করার একদিন আগে দেশটির পক্ষ থেকে এ ঘোষণা এলো।

এ বছরের জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্র সরকার পাকিস্তানের ব্যাপারে প্রায় সব ধরনের নিরাপত্তা সহায়তা তহবিল বাতিল করা হবে বলে ঘোষণা দেয়।

বিভিন্ন সময়ে যুক্তরাষ্ট্রসহ আরো অনেকেই অভিযোগ করে আসছে, জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে পাকিস্তান নিজেকে ব্যবহৃত হতে দিচ্ছে। আফগানিস্তান সীমান্তে নানা রকম হামলাকেও মদদ দিচ্ছে। যদিও ইসলামাবাদ এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

এর আগে গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র জানায়, ত্রুটিপূর্ণ হওয়ায় জাতিসংঘের ফিলিস্তিন শরণার্থী সংস্থা তহবিলে তারা আর অর্থ সহায়তা দেবে না।