Beta

কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ৭

০৪ জুন ২০১৮, ১৯:৩৫

অনলাইন ডেস্ক
কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি। ছবি : রয়টার্স

আফগানিস্তানের কাবুলে ওলামাদের সমাবেশের বাইরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় সাতজন নিহত হয়েছে। আজ সোমবার ওই ঘটনা ঘটে। এ সময় আফগান উলেমা কাউন্সিলের সভা চলছিল।

সংবাদ মাধ্যম ডন জানিয়েছে, ওই ঘটনায় ৯ জন গুরুতর আহত হয়েছে। তবে হতাহতদের মধ্যে ওলামা কয়জন তা এখনো জানা যায়নি।

কাবুলের পুলিশ প্রধান ঘাফর আজিজ জানান, সমাবেশস্থলের প্রবেশমুখে বোমা বিস্ফোরণ ঘটে।

এখন পর্যন্ত হামলার দায় স্বীকার করেনি কেউ। পুলিশ কর্মকর্তা আজিজ জানান, ঘটনাস্থলেই চারজন নিহত হয়। হতাহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে নিহতের সংখ্যা বেড়ে যায়। 

এই হামলার কিছু আগেই আফগান উলেমা কাউন্সিলের পক্ষ থেকে আত্মঘাতী বোমা হামলার সমালোচনা করে একে ‘হারাম’ ঘোষণা করা হয়। এই ধরনের হামলা বন্ধ করে শান্তি আলোচনার মাধ্যমে আফগানিস্তানে চলমান সংঘর্ষ দূর করার আহ্বান জানান তাঁরা।

ঘাফর আজিজ আরো জানান, ঘটনাস্থলে সারা আফগানিস্তান থেকে হাজির হওয়া দুই হাজারেরও বেশি ওলামা, ধর্মীয় পণ্ডিত ও ইসলামি আইনকানুনে বিশেষজ্ঞ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। ইসলামি অনুশাসন অনুযায়ী আত্মঘাতী বোমা হামলা 'হারাম' এই মর্মে এক ফতোয়া জারি করতেই তাদের এই সমাবেশ। বোমাহামলাকারীর মূল লক্ষ্যই ছিল তাঁরা।   

এই সমাবেশে আফগান সরকারি বাহিনী এবং তালেবান ও অন্যান্য বিদ্রোহী দলগুলোর মধ্যে যুদ্ধবিরতির মাধ্যমে শান্তি আলোচনায় বসার আহ্বান জানানো হয়।

সমাবেশে একটি ঘোষণাপত্র পাঠ শেষে ওলামা পরিষদের সদস্য গোফরানুল্লাহ মুরাদ বলেন, 'ইসলামি শরিয়াহ আইন অনুযায়ী আফগানিস্তানে চলমান এই যুদ্ধ ভিত্তিহীন এবং অবৈধ। শুধু মুসলমানদের রক্ত ঝরানো ছাড়া এর আর কোনো ভূমিকা নেই। '

গোফরানুল্লাহ আরো বলেন, ‘আমরা ধর্মীয় আলেম-ওলামারা তালেবানদের আহ্বান জানাই, সরকারপক্ষ থেকে প্রস্তাবিত শান্তি আলোচনার প্রতি তারা যেন ইতিবাচক ভাবে সাড়া দিয়ে আগামীতে আরো রক্তপাত হওয়ার পথ বন্ধ করে।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement