Beta

বাহরাইনে ৫০ হাজার বাংলাদেশির বৈধতার সুযোগ

০১ আগস্ট ২০১৫, ১১:২১ | আপডেট: ০১ আগস্ট ২০১৫, ১৫:৩০

সৈয়দ মামুন হোসেন, বাহরাইন
 

প্রায় ৫০ হাজার অবৈধ বাংলাদেশি শ্রমিককে বৈধ করার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করেছে বাহরাইনের বাংলাদেশ দূতাবাস। 

বাহরাইন সরকারের দেওয়া সময়সীমা অনুসারে, ১ জুলাই থেকে শুরু হওয়া এ কার্যক্রম চলবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এর মধ্যে এ অবৈধ শ্রমিকরা বৈধ হতে পারবেন বা ইচ্ছে করলে দেশে ফিরতে পারবেন। তবে এ সুযোগ পাচ্ছেন না ফৌজদারি মামলার আসামিরা।

বাহরাইনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের হিসাব অনুসারে, দেশটিতে প্রায় দুই লাখ বাংলাদেশি শ্রমিক বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত আছেন। এঁদের মধ্যে আবার প্রায় ৫০ হাজার শ্রমিক রয়েছেন যাঁদের বৈধ কোনো কাগজপত্র নেই যাঁরা সাধারণত নির্মাণশ্রমিক ও গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করেন। বৈধতা না থাকায় তাঁদের মজুরিও কম। আর তাঁদের দেশে ফেরারও কোনো ব্যবস্থা ছিল না। 

অবিরাম কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় শেষ পর্যন্ত বরফ গলে বাহরাইন সরকারের। ঘোষণা আসে এ মহা সুযোগের। অবৈধরা পেতে যাচ্ছেন বৈধতার সুযোগ। এরই মধ্যে অনেকে পেয়ে গেছেন পাসপোর্টও।

তবে সবাই এ খবর রাখেন কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে বাহরাইনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল কে এম মমিনুর রহমানের। তিনি বলেন, ‘আমাদের বাংলাদেশের যারা অবৈধ ছিল এ সুযোগটা তারা সুন্দরভাবে নেবে, সৎভাবে ব্যবহার করবে এবং স্বপ্ন পূরণ করবে, এটাই আমার প্রত্যাশা।’  

অবৈধ বাংলাদেশিদের এ খবর জানানোর জন্য প্রচার মাধ্যমের সুযোগ নেওয়া হবে বলেও জানান কে এম মমিনুর রহমান।

এদিকে এ সুযোগ দেওয়ার জন্য বাহরাইন সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক দলের নেতারা। তবে সরকারি ঘোষণায় এটাও রয়েছে, যাঁদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা আছে, তাঁরা এ সুযোগ পাবেন না।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement