Beta

এখন ওষুধের দোকানেই মিলবে গাঁজা!

১৯ জুলাই ২০১৭, ১২:১২ | আপডেট: ১৯ জুলাই ২০১৭, ১২:৪৫

এএফপি
উরুগুয়ের ওষুধের দোকানগুলোতে প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রি শুরু হয়েছে। গাঁজা কেনার জন্য নিবন্ধন করছেন এক নারী। ছবি : এএফপি

উরুগুয়ের ওষুধের দোকানগুলোতে প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রি শুরু হয়েছে। ২০১৩ সালের আইনের চূড়ান্ত ধাপে এ বিক্রি শুরু হলো। ফলে বিশ্বের প্রথম প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রির বৈধতাদানকারী দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পাচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার ছোট দেশটি।

স্থানীয় সময় বুধবার থেকে প্রকাশ্যে ওষুধের দোকানে মোড়কজাত গাঁজা বিক্রি শুরু হয়।

দেশটির বামপন্থী প্রেসিডেন্ট তাবারে ভ্যাজকুইজ গত সপ্তাহে গাঁজা বাণিজ্যিকরণের ঘোষণা দেন।

প্রথমে পরীক্ষামূলকভাবে ১৬টি ওষুধের দোকানকে গাঁজা বিক্রির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সারা দেশে গাঁজা পৌঁছে দিতে সরকার বড়ো ওষুধের সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এখনো চুক্তির কোনো উদ্যোগ নেয়নি।

তবে যত্রতত্র  গাঁজা বিক্রি করা হবে না। এ আইনের আওতায় ওষুধের দোকান থেকে গাঁজা কিনতে হলে আগে নিবন্ধন করতে হবে। আর নিবন্ধনকারীরাই কেবল গাঁজা কিনতে পারবেন।

সরকারের দেওয়া তথ্য মতে, চার হাজার ৯৫৯ জন এ পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন। যাদের মধ্যে অধিকাংশের বয়সই ৩০ থেকে ৪৪ এর মধ্যে।

২০১৩ সালের আইনের আওতায় তিন ধাপে ওষুধের দোকান থেকে এ নিবন্ধন ফর্ম ছাড়া হয়। এতে প্রথম ধাপে ছয় হাজার ৯৪৮ জনের বেশি গ্রাহক বাড়িতে বসে গাঁজা সেবনের জন্য নিবন্ধন করেন এবং ৬৩টি স্মোকার্স ক্লাবও অনুমোদন নেয়। 

ওষুধের দোকানে বিক্রির জন্য মাত্র দুটো কোম্পানিকে সরকারিভাবে গাঁজা উৎপাদনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর বাইরে কেউ গাঁজা উৎপাদন করতে পারবে না।

গত সোমবার উরুগুয়ের ন্যাশনাল ড্রাগ কাউন্সিল (এনডিসি) গাঁজার প্যাকেট দেখতে কেমন হবে তার সম্ভাব্য ছবি টুইটারে পোস্ট করেছিল। সাদা ও নীল মোহরযুক্ত ছোট প্যাকেটগুলো দেখতে অনেকটা কনডমের প্যাকেটের মতো।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement