Beta

ছাত্রলীগের সঙ্গে সুর মেলাল ঢাবির বাস কমিটির নেতারা

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৩:২৭

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা
মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে বাস কমিটির নেতাদের সংগঠন ‘সম্মিলিত বাস রুট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’। ছবি : এনটিভি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে ‘হলে ভোটকেন্দ্র স্থাপন’ নিয়ে যখন ছাত্রলীগ ও বিরোধী ছাত্র সংগঠনগুলোর পক্ষে-বিপক্ষে তুমুল আলোচনা চলছে তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন রুটের বাস কমিটির নেতারা ছাত্রলীগের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাবির মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে বাস কমিটির নেতাদের সংগঠন ‘সম্মিলিত বাস রুট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ হলে ভোটকেন্দ্র করার পক্ষে মত দেয়।

কমিটির নেতারা মনে করছেন, হলগুলোতে নির্ভয়ে-নিঃশঙ্কচিত্তে ও আনন্দময়ভাবে ভোটদানের সার্বিক পরিবেশ রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়েন ফাল্গুনী বাস কমিটির সভাপতি নূর মোহাম্মদ বাপ্পী। তিনি বলেন, অনাবাসিক শিক্ষার্থীরা হলের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গিভাবে সম্পৃক্ত। সেখানে আমাদের যাতায়াত অবাধ। ডাকসু নির্বাচনের জন্য বর্তমানে হলে সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় আছে। কিন্তু নির্বাচনকে ঘিরে এখানে আবাসিক ও অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে কৃত্রিম বিভেদ সৃষ্টির অপচেষ্টা করা হচ্ছে। নির্বাচন নিয়ে আর কোনো জল ঘোলা হোক, তা আমরা চাই না। এর আগে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) ভিত্তিক সংগঠনগুলোর নেতারাও ছাত্রলীগের সঙ্গে একমত হয়ে ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের ভোটকেন্দ্র হলে করার দাবি জানান।

এ সময় বাস কমিটির নেতারা সাতদফা দাবি তুলে ধরেন। তাদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- প্রত্যেক রুটে বাস বৃদ্ধি, নতুন ডাবল ডেকার বাস, বাসের রুট বৃদ্ধি, বিআরটিসির পক্ষ থেকে দক্ষ চালক ও হেলপার নিয়োগ ইত্যাদি। নির্বাচনে বিভিন্ন সংগঠন ও জোটের ইশতেহারে এসব দাবির অন্তর্ভুক্তি চান তাঁরা।

এদিকে, সংবাদ সম্মেলনের ব্যাপারে বাস কমিটির শীর্ষ নেতারা তাঁদের সঙ্গে কোনো আলোচনা করেননি বলে জানান একাধিক শিক্ষার্থী। এ বিষয়ে সম্মিলিত বাস রুটের অন্যতম নেতা ও ক্ষণিকা বাসের সভাপতি মো. রায়হান বলেন, বাসের শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটি সাধারণ জরিপের ভিত্তিতে পাওয়া বক্তব্যই তাঁরা সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরেছেন।

এ বিষয়ে সম্মিলিত বাস রুটের সমন্বয়ক রাকিব হাওলাদার বলেন, ছাত্রলীগ ছাড়া অন্য কোনো সংগঠন বা জোটের পক্ষ থেকে তাঁদের এখনো ডাকা হয়নি। ছাত্রলীগের নেতারা তাঁদের সঙ্গে কয়েক দফা আলোচনা করেছেন। মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের যেকোনো সংগঠন বা জোটের সঙ্গে ডাকসু নির্বাচনে যেতে তাঁরা প্রস্তুত রয়েছেন।

Advertisement