Beta

শাহবাগ থেকে জাহাঙ্গীরনগরের ৪ শিক্ষার্থী আটক

০৬ আগস্ট ২০১৮, ২২:৩২

জাবি সংবাদদাতা
রাজধানীর শাহবাগে আজ সোমবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মিছিলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে পুলিশ জলকামান দিয়ে পানি ছিটিয়ে, কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়ে ও লাঠিপেটা করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। ছবি : ফোকাস বাংলা

সোমবার বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ।

সহপাঠীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যমতে আটক শিক্ষার্থীরা হলেন, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের ৪৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী আবু হোসাইন সিদ্দিক, আলা নুরে জা হোসাইন রিজু, একই বিভাগের ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী উম্মে হাফসা এবং অর্থনীতি বিভাগের ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী প্রাপ্তি তাপসী।

চার শিক্ষার্থীকে আটকের খবর ছড়িয়ে পড়লে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস থেকে মিছিল নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের জয়বাংলা (প্রান্তিক) গেটের সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করেন। একপর্যায়ে শিক্ষার্থীরা মহাসড়ক ছেড়ে ফটকের ভেতর অবস্থান নেয়। এ সময় বিপুল সংখ্যক পুলিশ এসে অ্যাকশন মুডে ফটকের সামনে অবস্থান ন্যায়। দুইপক্ষের মুখোমুখি অবস্থানে এ সময় থমথমে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলতে থাকে এ পরিস্থিতি। আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের শান্ত থাকার জন্য অনুরোধ করেন। একপর্যায়ে পুলিশ ফটকের সামনে থেকে সরে যায়। পরে শিক্ষার্থীরাও সেখান থেকে সরে যান এবং ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

আটককৃত শিক্ষার্থীদের রাতের মধ্যে ছেড়ে দেওয়া না হলে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করা হবে বলে ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ও আটককৃতদের সহপাঠীরা জানান, আটককৃতদের মধ্যে তাপসী ও হাফসাকে পুলিশ ছেড়ে দিলেও সিদ্দিক ও রিজুকে এখনও ছাড়েনি।

রাত সাড়ে ৯টায় শাহবাগ থানার সামনে থেকে খান মুনতাসির আরমান নামের এক শিক্ষার্থী জানান, রিজু ও সিদ্দিককে পুলিশ এখনও ছেড়ে দেয়নি। হাজত থেকে তাদের ওসির রুমে নিয়ে যেতে দেখেছি। এখানে রিজুর চাচা, ভাই, বোন এবং সিদ্দিকের বাবা রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুর ১২টার দিকে প্রায় ৩০০ শিক্ষার্থী ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ ব্যানারে টিএসসির রাজু ভাস্কর্য চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়কে প্রদক্ষিণ করে। এ সময় তারা নিরাপদ সড়কের দাবি জানায় এবং আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেয়। পরে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে তাদের মিছিলটি শাহবাগ অভিমুখে রওনা দেয়। মিছিলটি শাহবাগ থানার সামনে পৌঁছালে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা দাঁড়িয়ে স্লোগান দেয়। এর পরই পুলিশ জলকামান দিয়ে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে। তারপরও শিক্ষার্থীরা রাস্তা না ছাড়লে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়ে এবং লাঠিপেটা শুরু করে। একপর্যায়ে আন্দোলনকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট নিক্ষেপ করে। এ সময় এক পুলিশ সদস্য আহত হন। পাশাপাশি আন্দোলনকারীদের ১২ জন আহত হয় বলে দাবি করা হয়। এ সময় তিনজনকে আটক করা হয়। বিকেল সাড়ে ৩টার পর আন্দোলনকারীরা বিক্ষিপ্তভাবে টিএসসির দিকে চলে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement