Beta

ঝালকাঠি পৌর মেয়রের মুক্তির দাবি পরিবারের

১৬ মার্চ ২০১৫, ১৮:৪৫

কে এম সবুজ, ঝালকাঠি
চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে করা মামলায় জেলহাজতে থাকা ঝালকাঠি পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন রানার মুক্তির দাবি করেছে তাঁর পরিবার। আজ সোমবার দুপুর ১২টায় শহরের আড়তদারপট্টির নিজস্ব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত মেয়রের স্ত্রী ফরিদা ইয়াসমিন ছবি ও পরিবারের স্বজনরা।

চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরকদ্রব্য আইনে করা মামলায় জেলহাজতে থাকা ঝালকাঠি পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেন রানার মুক্তির দাবি করেছে তাঁর পরিবার। 

আজ সোমবার দুপুর ১২টায় শহরের আড়তদারপট্টির নিজস্ব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মেয়রের স্ত্রী ফরিদা ইয়াসমিন ছবি এ দাবি জানান। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ফরিদা দাবি করেন, পৌরসভা নির্বাচনে পরাজিত পক্ষ ও প্রভাবশালী একটি মহলের ইন্ধনে এক কাউন্সিলর মেয়র ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেন। এই মামলায় মেয়র আফজাল বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছেন। মামলার কারণে হয়রানির শিকার হচ্ছেন মেয়রের পরিবারও।

ফরিদা অভিযোগ করেন, পৌর কাউন্সিলর হুমায়ুন কবির ও তাঁর সহযোগী কবির হোসেন দুটি মামলা করেই ক্ষান্ত হয়নি; এখনো তাঁরা মেয়র ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। 
এসব মামলা প্রত্যাহার এবং মেয়রের মুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর কাছে অনুরোধ করেছেন ফরিদা ইয়াসমিন ছবি। 

সংবাদ সম্মেলনে মেয়রের ছেলে উজ্জ্বল হোসেন, মেয়ে ইশিতা হোসেনসহ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
 
ঝালকাঠি শহরের পালবাড়ী এলাকার ব্যবসায়ী কবির হোসেনের করা চাঁদাবাজির একটি মামলায় গত ২ মার্চ পৌরসভার মেয়র আফজাল হোসেন ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির হলে বিচারক মো. শাহীদুল ইসলাম তাঁকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। পরে গত ১০ মার্চ এই মামলায় আদালত তাঁর জামিন মঞ্জুর করলেও মুক্তি পাননি আফজাল হোসেন। একই দিন পৌর কাউন্সিলর হুমায়ুন কবিরের করা বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলায় মেয়রকে শ্যোন অ্যারেস্ট (দৃশ্যত গ্রেপ্তার) দেখানো হয়। 



 

Advertisement