Beta

আবরার ফাহাদ হত্যা মামলা

ছাত্রলীগনেতা সকালের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৯:২০

আদালত প্রতিবেদক
বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বী হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা বুয়েট ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল গত ৮ অক্টোবর ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে। ছবি : ফোকাস বাংলা

বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বী হত্যা মামলায় রিমান্ডে থাকা বুয়েট ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আসামি সকাল এ জবানবন্দি দেন।

ঢাকার অপরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার জাফর হোসেন এনটিভি অনলাইনকে এ কথা জানিয়েছেন।

জাফর হোসেন বলেন, আসামি স্বীকারোক্তি দিতে রাজি হলে বিচারক তাঁর স্বীকোরোক্তিমূলক জবানবন্দি নেন। এরপর তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ৮ অক্টোবর আসামি ইফতি মোশাররফ সকালকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠায়। সে রিমান্ড শেষ হওয়ার আগেই সকাল আজ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

সকাল ছাড়া রিমান্ড মঞ্জুর করা আসামিরা হলেন বুয়েট ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহতাসিম ফুয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, সাহিত্য সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, সদস্য মুনতাসির আল জেমি, মো. মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর, ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, মো. আকাশ হোসেন ও শামসুল আরেফিন রাফাত।

গত ৭ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় হত্যা মামলা করেন আবরারের বাবা মো. বরকত উল্লাহ। গতকাল রাতেই বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১১ জনকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

Advertisement