Beta

নাসা গ্রুপে শ্রমিক ছাঁটাই, সাতরাস্তা আটকে বিক্ষোভ, সরাল পুলিশ

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৩৮ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৪৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

বেআইনিভাবে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় নাসা গ্রুপের পোশাক শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন। এ সময় পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। যানজটে আটকা পড়ে যানবাহন ও অফিসমুখী মানুষ।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর তেজগাঁওয়ের সাতরাস্তা মোড় সড়কে এই অবরোধের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ধাওয়া দিয়ে তাঁদের সরিয়ে দেয় বলে শ্রমিকরা অভিযোগ করেছেন। যদিও পুলিশ দাবি করেছে, মালিকপক্ষ এসে আশ্বস্ত করায় শ্রমিকরা সড়ক ছেড়ে চলে গেছে।

এর আগে একই দাবিতে গতকাল বুধবার সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত একই স্থানে অবস্থান নেন শ্রমিকরা। ভোর থেকে আবার তাঁরা সড়কে অবস্থান নেন।

আবুল আহাদ নামের এক শ্রমিক এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আমাদের দেড়শ শ্রমিককে ছাঁটাই করা হয়েছে কোনো কারণ ছাড়ায়। এ ছাড়া বকেয়া বেতনের কারণে আমরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছি। আমাদের অনেক ভাইবোন চাকরি হারিয়েছেন। আমিও কাল হারাতে পারি। আমাদের জোর করে রাস্তা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কোনো আশ্বাস আমরা পাইনি এখনো।’

শাহিন নামের একজন শ্রমিক বলেন, ‘কথায় কথা সাদা কাগজে সই নিয়ে আমাদের চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে। চার মাসের বেতন বাকি, তা দেওয়ার নাম নেই। এর আগেও মালিক বেতন দিতে চেয়ে দেয়নি। আমাদের বউ-বাচ্চা খাবে কী?’

যদিও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) আনিসুর রহমান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘শ্রমিকদের আমরা আশ্বস্ত করেছি। মালিকপক্ষ এসেছিল ঘটনাস্থলে। তাদের আর চাকরিচ্যুত করা হবে না বলেও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।’

‘কিন্তু শ্রমিকদের ভেতরে কোনো নেতা না থাকায় তারা রাস্তায় অবস্থান নিয়ে ইট-পাটকেল ছোড়েন। এতে আমাদের কিছু পুলিশ সদস্য আহত হন। তারপর আমরা তাঁদের সড়ক থেকে সরে যেতে বাধ্য করি। কারণ তাঁদের কারণে পুরো রাস্তা বন্ধ হয়েছিল। এতে সাধারণ জনগণের ভোগান্তি হচ্ছিল। তাই আমরা তাদের সরিয়ে দিয়েছি দুপুর ১২টার দিকে।’

তবে সরাসরি মালিকপক্ষ শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেছে কি না, ডিসি জানাতে পারেননি।

এদিকে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল এনটিভি অনলাইনকে বলেন, 'শ্রমিকদের সড়ক অবরোধের সময় এখানে মালিকপক্ষের লোকজন আসেনি।’

Advertisement