Beta

মৌলভীবাজারে ইলিয়াস কাঞ্চন

সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে গেলে বাজেটের প্রয়োজন

১৫ জুলাই ২০১৮, ২০:৫৪

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন আজ রোববার বিকেলে মৌলভীবাজারের পিটিআই অডিটরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। ছবি : এনটিভি

নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেছেন, দেশে সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে গেলে একটি বাজেটের প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে, এই দুর্ঘটনা রোধে এখনো জাতীয় কোনো বাজেট প্রণয়ন করা হয়নি। যদি জাতীয় বাজেট প্রণয়ন করা না হয় এবং দুর্ঘটনা রোধে প্রয়োজনী পরিকল্পনা না নেওয়া হয়, তাহলে এটি চলবে কিভাবে।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, দুর্ঘটনা রোধে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। যারা গাড়িতে যাত্রী হিসেবে গাড়ির ভেতরে থাকেন তারাও চালককে সতর্ক করে দেওয়ার পরামর্শ দেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবশ্য ছয়টি বিষয় পয়েন্ট আউট করেছেন। এই ছয়টি পয়েন্ট বাস্তবায়িত হলে দেশে দুর্ঘটনার রোধ অনেকটা কমে আসবে।

আজ রোববার বিকেল সাড়ে ৫টায় মৌলভীবাজারের পিটিআই অডিটরিয়ামে পিটিআই ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে এ কথাগুলো বলেন ইলিয়াস কাঞ্চন।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আমাদের দেশে রাস্তায় কিভাবে গাড়ি চলবে, কোনো সরকার এখনো কোনো ধরনের পরিকল্পনা করেনি। আমাদের দেশে কোনো  কাজ পরিকল্পনা করে হয় না। সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতি বছর ৪০ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হয়। সরকার জানে না জনগণের সেবার জন্য কিভাবে পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করতে হবে। রাস্তায় কেমন গাড়ি চলতে পারবে।

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন প্রসঙ্গে এর প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ১৯৯৩ সালে আমি আন্দোলন শুরু করেছি। আমরা প্রত্যেকটা জিনিষের ইচ্ছাকৃতভাবে সমস্যা তৈরি করি। দেশে ২৫ লাখ মোটরসাইকেল আছে। আমরা যাই উন্নয়ন করি, তার কোনো পরিকল্পনা নেই। পৃথিবীতে যেকোনো কাজ পরিকল্পনা করে না করলে ফলপ্রসূ হয়না।

শিক্ষকদের উদ্দেশ করে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, আপনারা মানুষ তৈরি করার কারিগর। আপনাদের শিক্ষার্থীদের সচেতন করে তুলতে হবে। রাস্তায় চলতে হলে প্রত্যেকের দায়িত্ব কী তা জানাতে হবে।

পিটিআই ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে নিরাপদ সড়ক চাই সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম। খিজির মোহাম্মদ জুলফিকারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেনের পরিচালনায় বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সারোয়ার আলম, নিসচার মহাসচিব সৈয়দ এহসান-উল হক কামাল, মৌলভীবাজারে উপদেষ্টা এম এ রহিম, বিআরটিএর সহকারী পরিচালক মো. হাবিবুর রহমান, পিটিআই স্কুলের সুপারিনটেনডেন্ট এ কে এম সাইফুল হাসান, নিসচার যুগ্ম সম্পাদক লিটন এরশাদ, অর্থ সম্পাদক নাসিম রুনি, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সহসভাপতি সৈয়দ হুমায়েদ আলী শাহিন, সাধারণ সম্পাদক সালেহ এলাহি কুটি, সদর সার্কেলের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সালাউদ্দিন আহমদ কাজল, নিসচার সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম।

কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ ও শোক প্রস্তাব উপস্থাপন করেন নিসচার সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আজাদ হোসেন। প্রবন্ধে তিনি বলেন, ২০১৭ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৩৩ জন শিক্ষক ও ৯০৩ জন ছাত্র নিহত হয়েছিলেন।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement