Beta

দেহ ব্যবসা না করায় স্ত্রীর কব্জি কর্তন, স্বামী গ্রেপ্তার

১০ জুলাই ২০১৮, ২৩:১৯

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় স্ত্রী নির্যাতনের মামলায় গ্রেপ্তার লিটন মিয়া (মধ্যে)। ছবি : এনটিভি

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় প্রসূতি স্ত্রীর হাতের কব্জি কেটে নিয়েছেন লিটন মিয়া নামের এক স্বামী। সেই মামলায় গতকাল সোমবার রাতে শেরপুরের নতুন বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে লিটনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শেরপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলাম জানান, মামলার বাদী কুলসুম বেগমের সঙ্গে বছর খানেক আগে ঝিনাইগাতী উপজেলা সদরের লিটন মিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য কুলসুমের ওপর চাপ দেওয়াসহ নির্যাতন চলতে থাকে। একপর্যায়ে যৌতুকের দাবি পূরণ না হওয়ায় স্ত্রীকে দিয়ে দেহ ব্যবসা করাতে চান লিটন মিয়া। এতেও কুলসুম রাজি হননি। এ কারণে গত ১৩ জুন বিকেলে লিটন মিয়া ও তাঁর ভাইয়েরা মিলে কুলসুমের ওপর শারীরিক নির্যাতন চালান। এরই একপর্যায়ে দায়ের কোপে কুলসুমের ডান হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এ ঘটনায় কুলসুম বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় পলাতক থাকার পর সোমবার রাতে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন লিটন।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement