Beta

এরশাদ সাহেব বয়স্ক মানুষ, তাঁর কথা ধরতে নেই : হানিফ

১৬ এপ্রিল ২০১৮, ২০:০২

সাবিনা ইয়াসমিন শ্যামলী, কুষ্টিয়া
কুষ্টিয়া স্টেডিয়ামে আজ সোমবার ওয়াল্টন প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি। ছবি : এনটিভি

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, ‘উনার অনেক বয়স হইছে, কখন কী বলে সেটা আমলে নেওয়ার কোনো যৌক্তিকতা নেই।’

আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া স্টেডিয়ামে ওয়াল্টন প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের উদ্বোধনকালে সংসদ সদস্য মাহবুব-উল-আলম হানিফ সাংবাদিকদের  এসব কথা বলেন।

গতকাল রংপুরে এক সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সরকারের জনপ্রিয়তা শূন্যের কোঠায় বলে মন্তব্য করেছিলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। তারই জবাবে আজ মাহবুব-উল-আলম হানিফ এসব কথা বলেন।

মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, ‘প্রথমত, একটা বিষয় আমরা সবাই জানি, দেশবাসীও জানে। আমাদের সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ সাহেবের বয়স এখন কোথায়? প্রায় ৯০-এর কোঠায়। এই এত একটা বয়স্ক মানুষ, এইটা কখন কী বলে সে কথাটা আসলে ধর্তব্যের মধ্যে আসে না। কারণ যদি আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা শূন্যের কোঠায় হয়, তো মাত্র দুই দিন আগেই তিনি বলেছিলেন যে, আওয়ামী লীগের সঙ্গে তাঁরা ৭০টা আসনে নির্বাচন করার জন্য শরিক হতে চান। যার জনপ্রিয়তা শূন্যের কোঠায় তাঁর সঙ্গে কেউ নির্বাচনে জোটভুক্ত হতেও চায় না, শরিকও হতে চায় না। স্বাভাবিকভাবে এটা প্রতীয়মান যে আসলে উনার অনেক বয়স হইছে, এই বয়সে কখন কী বলে সেটাকে আমলে নেওয়ার কোনো যৌক্তিকতা নেই।’

কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া প্রসঙ্গে মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, ‘আর বিএনপির তারা আন্দোলন করে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবে, এ কথাটা বারবার বলছে। আমরাও বারবার বলেছি, যে বেগম খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করা সম্ভব নয়। আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া আদালতের কোনো দণ্ডিত কয়েদিকে আন্দোলন করে মুক্ত করা যায় না। আসলে বিএনপির যেসব নেতা, আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার নাটক করছে, তারা আসলে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চায় না। কারণ তারা নিজেরাও জানে, যে আন্দোলন করে বেগম খালেদা জিয়াকে বা একজন দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদিকে মুক্ত করা যায় না। তারা নিজেরাও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চায় না বলেই এই ধরনের নাটক করতেছে।’

পরে মাহবুব-উল-আলম হানিফ ক্রিকেট লিগের উদ্বোধন করেন। এ সময় কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ, নির্বাহী সদস্য আফরোজা আক্তার ডিউ, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব উপস্থিত ছিলেন।

এই ক্রিকেট লিগে ১৪টি দল অংশ নিচ্ছে। আজ উদ্বোধনী খেলায় অংশ নেয় অ্যাথলেটিক ক্লাব ও তরুণ সংঘ ক্লাব।

Advertisement