Beta

পিরোজপুরে জনসভায় এরশাদ

জাতীয় পার্টির সহযোগিতায় আ. লীগ ক্ষমতায়

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২৩:২৩

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আজ মঙ্গলবার পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য দেন। ছবি : এনটিভি

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, জাতীয় পার্টির সহযোগিতায় আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে। কিন্তু এই দলকে আর ক্ষমতায় রাখতে দেওয়া যায় না। গরিব মানুষকে মেরে ফেলছে তারা। শোষণ করছে। রক্ত খাচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় শহীদ মোস্তফা খেলার মাঠে উপজেলা জাতীয় পার্টি আয়োজিত এক জনসভায় এরশাদ এসব কথা বলেন।

এরশাদ বলেন, আওয়ামী লীগ কিংবা বিএনপি কেউ জাতীয় পার্টির বন্ধু নয়। জাতীয় পার্টির প্রতি কোনো দলই সুবিচার করেনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ দূত এরশাদ বলেন, ‘আমরা প্রতিহিংসায় বিশ্বাস করি না। আমরা উন্নয়নে বিশ্বাস করি, শান্তিতে বিশ্বাস করি। হত্যায় বিশ্বাস করি না, মানুষ মারা বিশ্বাস করি না। মানুষ গুম বিশ্বাস করি না। সেজন্য মানুষ মনে করছে একটা পরিবর্তনের প্রয়োজন আছে। এই দুই দল দিয়ে দেশ চলবে না। পরিবর্তনের দরকার আছে। কোন পার্টিকে এখন তারা চায়? জাতীয় পার্টিকে। কেন? জাতীয় পার্টিকে কেন চায়?’

সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘যদি বিএনপি ক্ষমতায় আসে আওয়ামী লীগের জায়গা নাই, নিরাপদ নয়। যদি আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকে বিএনপি নিরাপদ নয়। আমরা ক্ষমতায় আসলে সবাই নিরাপদ। আমরা সবাই নিরাপদ। সে দলকে মানুষ ভোট দিবে না? মানুষ শান্তি চায়। শান্তিতে বাস করতে চায়, নিরাপত্তা চায়। মানুষ ঘুমাতে চায় শান্তিতে। আমরা ছাড়া কেউ সেটা দিতে পারবে না।’

এ সময় পিরোজপুর-৩ (মঠবাড়িয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. মো. রুস্তম আলী ফরাজীকে আগামী নির্বাচনে দলের প্রার্থী ঘোষণা করেন এরশাদ। তিনি বলেন, ‘আপনাদের কাছে আবেদন, আগামী নির্বাচনে ফরাজীকে জয়ী করে আপনারা প্রমাণ করুন, আপনারা শান্তি চান। শান্তিতে ঘুমাতে চান। উন্নয়ন চান। নৌকা প্রতীক চান না।’

দেশের বর্তমান অবস্থার চিত্র তুলে ধরে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘দেশে কী এখন? প্রশ্নপত্র ফাঁস। যুবকদের চাকরি নাই। পুলিশে চাকরি নিতে ১০ লাখ টাকা লাগে। মাস্টারদের ২০ লাখ টাকা লাগে। পিয়নের চাকরিতে পাঁচ লাখ টাকা লাগে। আমাদের আমলে ছিল এগুলো? গরিব মানুষকে মেরে ফেলছে তারা। শোষণ করছে। রক্ত খাচ্ছে। সেই দলকে ক্ষমতায় রাখতে দেওয়া যায় না। তাই আপনাদের কাছে আবার আবেদন করব, পরিবর্তন মানুষ চায়। জাতীয় পার্টি সে পরিবর্তন এনে দিতে পারে। তাই জাতীয় পার্টিকে আবার ক্ষমতায় এনে প্রমাণ করেন, আপনারা শান্তি চান। খোদা হাফেজ।’

মঠবাড়িয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক নাজমুল আহসান কবিরের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মাদ কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা, দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, জিয়াউদ্দিন আহম্মেদ বাবলু, সুনীল শুভ রায়, মেজর (অব.) খালেদ আখতার ও সফিকুল ইসলাম সেন্টু।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement