Beta

আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ ভিত্তিহীন : ম খা আলমগীর

১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২০:৩২

নিজস্ব প্রতিবেদক
সংসদে মহিউদ্দীন খান আলমগীর। ছবি : সংসদ টিভি

ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মহিউদ্দীন খান (ম খা) আলমগীর তাঁর বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। আজ সোমবার বিকেলে জাতীয় সংসদের পয়েন্ট অব অর্ডারে তিনি এ দাবি করেন।

মহিউদ্দীন খান আরো বলেন, দেশের পরিস্থিতিকে অস্থির করতেই এমন সংবাদ করা হয়েছে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে স্পিকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। 

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মহিউদ্দীন খান আলমগীর আরো বলেন, ‘ফারমার্স ব্যাংকে রক্ষিত আমার ব্যাংক হিসাবের পুরো অংশ নিয়ে এসেছি। এই অংশে কোথাও এ কথা কেউ প্রমাণ করতে পারবেন না যে, কোনো ঋণগ্রহীতার তরফ থেকে আমার এখানে কোনো অর্থ ঢুকেছে। এটা আমার হিসাব। এখানে ১৭ জুলাই থেকে শুরু করে পরবর্তী সাত বা ১০ দিনে এ ধরনের কোনো ভুক্তি আমার হিসাবে হয়েছে বলে পরিদৃষ্ট হয় না। এই ধরনের অপবাদ আমি মনে করি সমাজে একটি সুস্থ পরিবেশ সৃষ্টি করার প্রতিকূল। মাননীয় স্পিকার আমি আপনার প্রতিরক্ষণ চাইব।’

গত বছর ২৭ নভেম্বর ফারমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান মহীউদ্দীন খান আলমগীর ও ব্যাংকটির নিরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান মাহাবুবুল হক চিশতী পদত্যাগ করেন। সেই বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক জানায়, ফারমার্স ব্যাংকে বেশ কিছু দিন ধরে তারল্য ঘাটতি বিরাজ করছে এবং ব্যাংকটিতে আর্থিক সূচকসমূহের অবনতি ঘটে। বেশ কিছু আমানতকারী ব্যাংক থেকে অর্থ উত্তোলনের চেষ্টা করার ফলে ব্যাংকটির সমস্যা ঘনীভূত হয়। বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকের নজরে আসার পর প্রয়োজনীয় নিয়ন্ত্রণমূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া গত ১৯ ডিসেম্বর দায়িত্বে অবহেলা ও ব্যবস্থাপনায় ব্যর্থতার দায়ে ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এ কে এম শামীমকে অপসারণ করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এরপর গত ২১ ডিসেম্বর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সাংবাদিকদের বলেন, ফারমার্স ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতারাই ব্যাংকটিকে লুটপাট করে শেষ করে দিয়েছেন। সেদিন তিনি আরো বলেন, ফারমার্স ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংকের তত্ত্বাবধানে আছে, সংকট কাটাতে একটু সময় লাগবে।

ফারমার্স ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ছিলেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দীন খান আলমগীর।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement