Beta

পোস্তগোলায় হবে আধুনিক নৌ টার্মিনাল

২৮ মে ২০১৫, ০৫:৫৩ | আপডেট: ২৮ মে ২০১৫, ০৯:৩৪

অনলাইন ডেস্ক
নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বুধবার রাজধানীর সদরঘাট টার্মিনালে আয়োজিত এক সুধী সমাবেশে বক্তব্য দেন। ছবি : পিআইডি

রাজধানীর পোস্তগোলার শ্মশানঘাটে হবে আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত নৌ টার্মিনাল। এ জন্য ঢাকা নদীবন্দর সদরঘাট টার্মিনাল থেকে শ্মশানঘাট পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বুধবার এই নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন।

সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়েছে, সদরঘাট টার্মিনাল এলাকায় যানজট হ্রাস এবং প্রস্তাবিত শ্মশানঘাট টার্মিনাল এলাকায় স্বাভাবিক বন্দর সুবিধাদি উন্নয়নের মাধ্যমে যাত্রী চলাচল সহজীকরণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) নিজস্ব অর্থায়নে ‘সদরঘাট থেকে শ্মশানঘাট পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ’কাজ শুরু হয়েছে।

এ উপলক্ষে বুধবার সদরঘাট টার্মিনালে আয়োজিত এক সুধী সমাবেশে নৌপরিবহনমন্ত্রী বলেন, সরকার নৌ সেক্টরের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। দক্ষিণাঞ্চলের লঞ্চযাত্রীদের সুবিধার্থে পোস্তগোলা এলাকায় আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ একটি টার্মিনাল ভবন নির্মাণ করা হবে। সদরঘাটের যানজট নিরসন এবং দোকানদার ও হকারদের সুবিধার্থে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালের বিপরীতে বহুতলবিশিষ্ট মার্কেট নির্মাণ করতে তিনি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের প্রতি আহ্বান জানান।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, সংসদ সদস্য হাজি মো. সেলিম এবং বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাপ) সংস্থার চেয়ারম্যান মাহবুবউদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম।

তথ্য বিবরণীতে আরো বলা হয়েছে, প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে প্রায় ২০ কোটি টাকা। এর মধ্যে রয়েছে ২ দশমিক ৫০ কিলোমিটার আরসিসি রাস্তা ও ড্রেন, তীররক্ষা কাজ ও স্পার নির্মাণ। ২০১৬ সালের জুনের মধ্যে এ রাস্তার নির্মাণকাজ শেষ হবে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement