Beta

বোল্টের শেষের শুরু

০২ আগস্ট ২০১৭, ১৮:৪০

স্পোর্টস ডেস্ক

এটাই প্রকৃতির অমোঘ নিয়ম। যার শুরু আছে, একদিন সেটার অন্তও হবে। উসাইন বোল্টের বেলাতেও কথাটা প্রযোজ্য হচ্ছে। ২০০২ সালের বিশ্ব যুব চ্যাম্পিয়নশিপ দিয়ে ক্রীড়া বিশ্বের আকাশে যে তারাটি জ্বলতে শুরু করেছিল, এবার সেটা নিভতে যাচ্ছে। লন্ডনে অনুষ্ঠিত বিশ্ব অ্যাথলেট চ্যাম্পিয়নশিপটাই হতে যাচ্ছে বোল্টের শেষ টুর্নামেন্ট। বিদায়ী আসরেও বীরের বেশে মাঠ ছাড়তে চান এই তারকা অ্যাথলেট। বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বোল্ট জানান, শেষ এই আসরেও জয় চান তিনি। তাঁর রেকর্ডটা যে অনেকদিন ইতিহাসে টিতে থাকবে সেটাও দ্ব্যার্থহীনভাবে উচ্চারণ করেন জ্যামাইকার এই দ্রুততম মানব।

২০০৮ বেইজিং অলিম্পিক, ২০১২ লন্ডন অলিম্পিক ও ২০১৬ রিও অলিম্পিক- টানা তিন আসরে ১০০ মিটার, ২০০ মিটার ও ৪*১০০ মিটার রিলে থেকে টানা নয়টি সোনা জিতে ইতিহাসের অমর হয়ে রয়েছেন উসাইন বোল্ট। এর মধ্যে ৯.৫৮ সেকেন্ডে ১০০ মিটার, ১৯.১৯ সেকেন্ডে ২০০ মিটার আর ৩৬.৮৪ সেকেন্ডে ৪০০ মিটারের রেকর্ডটা আজীবন মনে রাখবে ক্রীড়ামোদিরা।

আগামী ৪ আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে অ্যাথলেটিকসের সবচেয়ে বড় আসর বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপ। আর এই আসর দিয়েই বিদায় নেবেন রেকর্ডের রাজা উসাইন বোল্ট। বোল্ড যতগুলো রেকর্ড করেছেন, সেগুলো কি কোনোদিনও ভাঙবে? এই তারকা স্বীকার করেছেন প্রকৃতির নিয়মেই একদিন তার রেকর্ডটাও ভেঙে যাবে। তবে সেটা যে খুব তাড়াতাড়ি হচ্ছে না সে বিষয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন তিনি। বোল্ট বলেন, আমার মনে হয় না কেউ এটা (রেকর্ড) ভাঙার সাহস করবে। হয়তো আমার সন্তান এটা করতে সক্ষম হবে। তবে যেটাই হোক এই প্রজন্মের কেউ রেকর্ড ভাঙতে পারবে না। হয়তো ১০ বছর পর বা আগামী কয়েক যুগ এই রেকর্ড টিকে থাকবে।’

ক্যারিয়ারের শেষ সময়ে পৌঁছে গেছেন বোল্ট। গত মাসে মোনাকোতে ডায়মন্ড লিগে ৯.৯৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে ১০০ মিটার শেষ করেন তিনি। এর মধ্যে দিয়ে বোল্টও মনে করছেন, তাঁর অবসরের সময় চলে এসেছে। তবে ক্যারিয়ারে সায়াহ্ণে এসেও নিজেকে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিন্ডের রাজা বলে ঘোষণা দিলেন এই দ্রুততম মানব। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি এখনো দ্রুততম। আমার সমকক্ষ এই সময়ে আর কেউ নেই। যখনই আপনি বিশ্বের সেরা ক্রীড়াবিদের আলোচনা করবেন সেখানে আমার নাম চলে আসবে। মানুষ বলবে, সত্যিই উসাইন বোল্ট সর্বকালের সেরা ছিলেন।’

অবসরের পর মাঠের সময়গুলোকে মিস করবেন বোল্ট। তিনি বলেন, ‘আমাকে ঘিরে মানুষের মধ্যে উন্মাদনা থাকত সেটাকে দারুণ মিস করব আমি। অবসরের পর জীবনটাকে উপভোগ করতে চাই আমি। যা মনে আসবে তাই করতে চাই।’

Advertisement
0.8449718952179