Beta

ভিয়েতনামের ওপর থেকে উঠছে যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা

২৪ মে ২০১৬, ১০:১৩

অনলাইন ডেস্ক
ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট ত্রান দাই কুয়াংয়ের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ছবি : রয়টার্স

ভিয়েতনামের ওপর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। এখন থেকে প্রতিরক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্র দেশগুলো থেকে অস্ত্র কিনতে পারবে ভিয়েতনাম।

বিবিসি জানায়, চীনের ক্ষমতা খর্ব করতে প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বন্ধু দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক দৃঢ় করছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে ভিয়েতনামের ওর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি তুলে নেওয়াকে যুক্তরাষ্ট্রের চীন নীতির সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন ওবামা।

ভিয়েতনাম সফররত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, ভিয়েতনামের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পক্রিয়া হিসেবে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে। ওবামা আরো বলেন, ‘এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার মাধ্যমে স্নায়ুযুদ্ধের সময়কার এক বর্ম অপসারিত হলো।’

ভিয়েতনামের প্রেসিডেন্ট ত্রান দাই কুয়াংয়ের সঙ্গে বৈঠক শেষে বারাক ওবামা বলেন, অস্ত্র কেনার আগে ভিয়েতনামকে মানবাধিকার নিশ্চিত করতে হবে। তবে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞায় পরিবর্তনের মাধ্যমে এটি নিশ্চিত হলো দেশটি এর প্রতিরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় অস্ত্র সংগ্রহ করতে পারবে। 

বিবিসি জানায়, প্রশান্ত মহাসগীয় অঞ্চলের আর কয়েকটি দেশের মতোই সমুদ্র সীমা নিয়ে চীনের সঙ্গে ঝামেলা আছে ভিয়েতনামের। দক্ষিণ চীন সাগরে অন্য দেশগুলোর নৌযান চলার স্বাধীনতার সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র।

দক্ষিণ চীন সাগরের পার্শেল দ্বীপপুঞ্জের কাছে চীনের তেলক্ষেত্র আছে। ২০১৪ সালে এই তেলক্ষেত্র নিয়ে চীনের সঙ্গে বিরোধ সৃষ্টি হয় ভিয়েতনামের। ওই সময় চীনবিরোধী বিক্ষোভ হয় ভিয়েতনামে।

বিবিসি জানায়, ভিয়েতনাম যুদ্ধের পর ১৯৮৪ সাল থেকে ভিয়েতনামের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা বলবৎ রাখে যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৪ সালে এই নিষেধাজ্ঞা আংশিক তুলে নেওয়া হয়। তবে এর পর থেকে পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার তোড়জোড় শুরু করে ভিয়েতনাম।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement