Beta

তুরস্কের হামলায় সিরিয়া ছেড়েছে লক্ষাধিক কুর্দি

১২ অক্টোবর ২০১৯, ১০:০৪

অনলাইন ডেস্ক
গতকাল শুক্রবার সিরিয়ার রাস আল-আইন শহর থেকে পালিয়ে যাচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ছবি : সংগৃহীত

উত্তর সিরিয়ার কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে এক লাখেরও বেশি মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে বলে জাতিসংঘ জানিয়েছে। কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠী এসডিএফ নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে আজ শনিবার চতুর্থ দিনের মতো স্থল ও আকাশপথে হামলা চালিয়েছে তুর্কি সেনারা।

এর ফলে তুর্কি বাহিনীর সঙ্গে এসডিএফ গেরিলাদের তুমুল লড়াই হচ্ছে। এই লড়াই থেকে প্রাণ বাঁচাতে সিরিয়ার লক্ষাধিক কুর্দি জনগোষ্ঠী তাঁদের ভিটেমাটি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। এটি অব্যাহত রয়েছে।

নিকটবর্তী হাসসাকা নগরীর তাল তামের শহরে স্কুল ও অন্যান্য ভবনে আশ্রয় নিচ্ছেন অনেক কুর্দি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ওই এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়ার পর তুরস্কের সামরিক বাহিনী গত বুধবার অভিযান শুরু করে। অভিযানে এ পর্যন্ত শতাধিক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে জানায় বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এর মধ্যে কুর্দি মিলিশিয়া এসডিএফের কয়েক ডজন যোদ্ধা রয়েছেন বলে জানা গেছে। তুর্কিপন্থি যোদ্ধারাও প্রাণ হারিয়েছেন এবং একজন তুর্কি সেনা নিহতের বিষয়টিও নিশ্চিত করেছে তুরস্কের সামরিক বাহিনী।

২০১১ সাল থেকে শুরু হওয়া গৃহযুদ্ধের ফলে এই এলাকাটি সিরিয়া সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। ২০১৫ সাল থেকে এটি কুর্দি নেতৃত্বাধীন এসডিএফের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র ছিল এসডিএফ। তুরস্কের অভ্যন্তরে কুর্দি বিদ্রোহীদেরকে সমর্থন দেওয়ার কারণে তুরস্ক তাদেরকে সন্ত্রাসী হিসেবে আখ্যা দিয়ে থাকে। সীমান্তে নিরাপদ এলাকা সৃষ্টির জন্য তুরস্ক অভিযানের নামে এই হামলা চালাচ্ছে।

অভিযান প্রসঙ্গে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান শুক্রবার বলেছেন, কে কি বলল তা শুনে আমরা এটা বন্ধ করব না।

এলাকাটিতে কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনীগুলোর হাতে কয়েক হাজার আইএস যোদ্ধা বন্দি হিসেবে রয়েছেন। তারা এই সুযোগে পালিয়ে যাচ্ছে বলে আন্তর্জাতিক মহল উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

এদিকে শুক্রবার সীমান্তবর্তী শহর কাসিমলিতে পুঁতে রাখা বোমায় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যসহ ছয়জন নিহত হয়েছে। আইএস এ হামলার দায় স্বীকার করে। এ ছাড়া কোবানেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঘাঁটির কাছে একটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে, তবে তাতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

গত বৃহস্পতিবার তুর্কি সামরিক বাহিনী তুরস্ক সীমান্তবর্তী সিরিয়ার রাস আল-আইন ও তাল আবইয়াদ শহরের আংশিক এলাকার নিয়ন্ত্রণ নেয়। দুটি শহরেই তুর্কি বিমান থেকে বোমা ফেলা হয়। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে বোমার বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট ধোয়ার কুণ্ডলী দেখা যায়। তাল আবইয়াদ শহরের একমাত্র সরকারি হাসপাতালটিও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

Advertisement