Beta

যৌনকর্মীকে বিয়ের প্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় কেটে পাঁচ টুকরা!

০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:১৭

অনলাইন ডেস্ক

এক যৌনকর্মীকে অন্ধকার জগৎ ছেড়ে এসে তাঁকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন এক যুবক। কিন্তু ওই নারী রাজি না হওয়ায় তাঁকে খুন করে দেহ পাঁচ টুকরা করেছেন সেই যুবক।

সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে জানায়, ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে। খুনের অভিযোগে ৩২ বছর বয়সী ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দিল্লি পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত ওই খুনির নাম মোহাম্মদ আইয়ুব। তিনি তিন সন্তানের বাবা। লতা ওরফে সালমা নামের এক যৌনকর্মীকে খুন করার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। দেহ ব্যবসার কাজ ছেড়ে লতাকে বিয়ে করতে বলেছিলেন আইয়ুব। লতা রাজি না হওয়ায় তাঁকে খুন করেন আইয়ুব।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০০৮ সালে একটি যৌনপল্লীতে লতার সঙ্গে প্রথম দেখা হয় আইয়ুবের। লতার কাছেই বারবার যেতেন তিনি। এই দীর্ঘ সময়ে একাধিকবার তাঁকে বিয়ের প্রস্তাবও দিয়েছেন তিনি। কিন্তু বারবার সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় দিল্লির বাওয়ানা ক্যানালের কাছে লতাকে নিয়ে গিয়ে খুন করেন অভিযুক্ত যুবক।

প্রথমে গলা কেটে হত্যা করা হয় লতাকে। তারপর লতার মরদেহ যেন চেনা না যায় সেজন্য পাঁচ টুকরা করে বিভিন্ন স্থানে ফেলে দেওয়া হয়।

কৈলাশনাথ কাটজু মার্গ পুলিশ স্টেশনে ক্যানাল থেকে দেহ উদ্ধারের পর মামলা দায়ের করা হয়। এরপর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিল্লির তুর্কমান গেট থেকে ঘাতক আইয়ুবকে গত শুক্রবার গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

Advertisement