Beta

রাজার স্ত্রীর গর্ভে জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতা অন্য কেউ : আইনজীবী

২৪ জুলাই ২০১৯, ২১:০১

অনলাইন ডেস্ক

পরপুরুষের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক থাকার অভিযোগে বিয়ের এক বছর না পেরোতেই সাবেক রুশ সুন্দরীকে তালাক দিয়েছিলেন মালয়েশিয়ার সাবেক রাজা সুলতান মুহম্মদ পঞ্চম। এই রুশ সুন্দরীকে বিয়ের পর সিংহাসনও ছেড়েছিলেন সুলতান। সেই তালাকের রেশ না কাটতেই আরেকবার শিরোনাম হলেন এই মালয়েশিয়ার সাবেক রাজা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দি সান এক প্রতিবেদনে জানায়, স্ত্রীকে তালাকের পর এবার রুশ সুন্দরীর গর্ভে জন্ম নেওয়া সন্তানের কথাও অস্বীকার করলেন রাজা সুলতান মুহম্মদ।

গত বছরের নভেম্বরে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় সুলতান মুহাম্মদ (৫০) ও মিস মস্কো ওকসানা (২৭) হঠাৎ বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। রাজার বিয়ের এ খবরে দেশটির নাগরিকরা চমকে যান। তাদের বিয়ে নিয়ে ব্যাপক তোলপাড়ও হয়।

তবে সাম্প্রতিক সময়ে তার স্ত্রী সাবেক মিস মস্কো রিহানা ওকসানা ভোয়েভোদিনার (২৭) পরপুরুষের সঙ্গে একটি আপত্তিকর দৃশ্যের ভিডিও ফাঁস হওয়ার জেরেই তাদের সংসারে ভাঙন ধরেছে বলে জানা যায়।

সাবেক রাজা সুলতান মুহম্মদ তার স্ত্রীকে তিন তালাক দিয়েছেন বলে তার আইনজীবী নিশ্চিত করলেও তার স্ত্রী এই তালাকের কথা অস্বীকার করছেন। তিনি বলছেন, তিনি এখনো সুলতান মুহম্মদ পঞ্চমের স্ত্রী। একই সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরে তিনি সামাজিক মাধ্যমে তাদের দুজনের দাম্পত্য জীবন এবং তাদের সন্তানের বেশ কিছু ছবি পোস্ট করে যাচ্ছেন।

এদিকে সুলতানের আইনজীবী কোহ তাইন হুয়া স্ট্রেইটস টাইমস পত্রিকাকে বলেন, ‘সুলতান মুহম্মদ পঞ্চম এই সন্তানের ঔরসজাত পিতা নন।’

গত ১ জুলাই সাবেক রাজা সুলতান মুহম্মদ পঞ্চমের সঙ্গে রিহানার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। ইসলামি শরিয়াহ অনুযায়ী, রাজা তাকে তিন তালাক দিয়েছেন। তালাকনামার একটি কপি রুশ সুন্দরীর কাছে পাঠানো হয়েছে। এদিকে, গত ২১ মে ছেলেসন্তানের মা হয়েছিলেন রিহানা।

Advertisement