Beta

চাঁদের পথে পাড়ি দিল ভারতের চন্দ্রযান-২

২২ জুলাই ২০১৯, ১৬:৫৩

কলকাতা সংবাদদাতা
চাঁদের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে চন্দ্রযান-২। ছবি : সংগৃহীত

উৎক্ষেপণ হলো চন্দ্রযান-২। আজ সোমবার ভারতীয় সময় দুপুর ২টা ৪৩ মিনিটে চন্দ্রযান-২ মহাকাশে যাত্রা শুরু করে। ভারতের শ্রীহরিকোটার সতীশ ধাওয়ান মহাকাশ কেন্দ্র থেকে চাঁদের পথে পাড়ি জমাল ভারতের দ্বিতীয় চন্দ্রযান।

ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো সূত্রে জানা গেছে, মাত্র ১৬ মিনিটের ওড়া শেষে মহাকাশে নির্দিষ্ট কক্ষপথে চন্দ্রযানকে পৌঁছে দেবে রকেট ‘বাহুবলি'। উল্লেখ্য, ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী রকেটে করে চাঁদে পাড়ি দেবে চন্দ্রযান-২ স্যাটেলাইট। জিওসিনক্রোনাস স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিক্যাল ‘মার্ক থ্রি’র মাধ্যমে চাঁদে পাঠানো হচ্ছে চন্দযান-২-কে। লঞ্চ ভেহিক্যালে থাকছে একটি অরবিটার, বিক্রম নামের একটি ল্যান্ডার এবং রোভার প্রজ্ঞান।

ইসরো সূত্রে জানা যায়, সেপ্টেম্বর নাগাদ এটি পৌঁছে যাবে চাঁদের বুকে। চন্দ্রযান-২-এর অভিযানে খরচ প্রায় এক হাজার কোটি রুপি। নিজেদের প্রযুক্তিতে ভারতে বানানো চন্দ্রযান-২-এর ওজন ৩.৮ টন। অরবিটারটি চন্দ্রপৃষ্ঠের ও চাঁদের খনিজের ছবি তুলবে ও ম্যাপিং করবে। ল্যান্ডার অংশের ওজন এক হাজার ৪৭১ কিলোগ্রাম। চাঁদের ভূমিকম্প ও চাঁদের তাপমাত্রা-সংক্রান্ত পর্যবেক্ষণ করবে এটি। পাশাপাশি ‘প্রজ্ঞান’ নামের ২৭ কিলোগ্রামের ছয় চাকার চলমান যানের মাধ্যমে চাঁদের মাটির পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে।

মূলত চাঁদের দক্ষিণ প্রান্তে পর্যবেক্ষণ চালাবে প্রজ্ঞান। ১৪ দিন ধরে চাঁদের আধকিলোমিটার এলাকাজুড়ে সফর করবে এই রোভার। এই অভিযানে সফল হলে চাঁদের মাটিতে যান পাঠানো দেশগুলোর তালিকায় চতুর্থ স্থানে উঠে আসবে ভারতের নাম।

ইসরোর অধিকর্তা ড. শিভান বলেন, ‘চাঁদের যে অংশে এই যান যাবে, সেখানে এর আগে কোনো দেশের যান পৌঁছতে পারেনি। মহাকাশবিজ্ঞানের ক্ষেত্রে ভারতের মর্যাদা আরো বৃদ্ধি করবে এই অভিযান।’

Advertisement