Beta

প্রেমের বলি : মেয়েকে খুন করে লাশ নদীতে ফেলে দিল পরিবার

০৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:৪৭ | আপডেট: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫৪

অনলাইন ডেস্ক

‘দরকার হলে মেয়েকে কেটে নদীতে ভাসিয়ে দেবো, তবুও তোমার হাতে তুলে দেবো না।’ নাটক-সিনেমায় এই কথাটা হয়তো জীবনে অনেকবার শুনেছেন। তবে মর্মান্তিক এই ঘটনা এবার ঘটেছে বাস্তবে। মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি বাবা-মা। আর সে জন্য মেয়েকে খুন করে লাশ গঙ্গা নদীতে ফেলে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে ভারতের মালদা জেলায়।

পুলিশের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির জানায়, পাশের গ্রামের একটি ছেলের সঙ্গে ১৬ বছর বয়সী কন্যার প্রেমের কথা জানতে পেরেই মেয়েকে খুন করেন অভিযুক্ত দম্পতি। পরে সেই লাশ গঙ্গায় ফেলে দেন তাঁরা। শনিবার এই দম্পতিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার মালদা জেলার মহেন্দ্রতলা গ্রামে পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে মেয়েকে খুন করেছে তার পরিবার। এক পুলিশকর্তা জানান, অভিযুক্তদের বাড়িতে গিয়ে ধীরেন মণ্ডল ও তাঁর স্ত্রী সুমতী মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

খবরে বলা হয়, মেয়েটির সঙ্গে পাশের গ্রামের অচিন্ত্য মণ্ডলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু দুজনের এই প্রেমের সম্পকর্কে কোনোভাবেই মেনে নেয়নি মেয়েটির বাবা-মা।

পুলিশ আরো জানায়, অভিযুক্ত দম্পতি নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে প্রথমে খুন করে। তারপর তাঁর লাশ একটি ব্যাগে ভরে গঙ্গায় ফেলে দেন তাঁরা।

Advertisement