Beta

সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রতিবেদন

তিন দশকে বাংলাদেশে শিশু মৃত্যুহার কমেছে ৭৭ ভাগ

২৯ মে ২০১৯, ১০:২২ | আপডেট: ২৯ মে ২০১৯, ১০:২৪

অনলাইন ডেস্ক

সেভ দ্য চিলড্রেন প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুদের স্বাস্থ্য ও শিক্ষার সুযোগ বৃদ্ধিসহ শিশুশ্রম ও বাল্যবিবাহের হার কমিয়ে এনেছে বিশ্বের ১৭৩টি দেশ। গত দুই দশকের মধ্যে এ হার সবচেয়ে সন্তোষজনক। মোট ১৭৬টি দেশের শিশুদের নিয়ে করা এ প্রতিবেদনে বলা হয়, তিনটি দেশে শিশুরা এখনো ঝুঁকিতে। আগামী ১ জুন আন্তর্জাতিক শিশু দিবস সামনে রেখে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সেভ দ্য চিলড্রেন।

গতকাল মঙ্গলবার প্রকাশিত এ প্রতিবেদনে বলা হয়, জাতিসংঘের পরিসংখ্যান অনুযায়ী বিশ্বের অন্তত ২৮ কোটি শিশু আগের চেয়ে ভালো অবস্থায় আছে। তবে প্রতিবেদনে এটাও বলা হয়, এখনো নিরাপদ ও সুস্থ শৈশবের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বিশ্বের এক-চতুর্থাংশ শিশু।

সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের ১৭৬টি দেশের মধ্যে শিশুদের নিরাপত্তা ও প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার ক্ষেত্রে ২০১৯ সালের সূচকে শীর্ষে আছে সিঙ্গাপুর। এরপর ক্রমান্বয়ে আছে সুইডেন, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে ও বেলজিয়াম। আর তালিকার একেবারে তলানির দেশগুলো হলো (নিচ থেকে ওপরে)—সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক, নাইজার, শাদ, মালি ও দক্ষিণ সুদান। সূচকে উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। গত বছর বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৩০তম। এ বছর সেটি ১২৭।

প্রতিবেদনে বলা হয়, স্বাস্থ্য খাতে নিয়মিত বিনিয়োগের কারণে বাংলাদেশে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুর মৃত্যুহার অনেক কমেছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, গত দুই দশকের মধ্যে ২০০০ সালটি ছিল সারা বিশ্বে শিশুদের জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বছর। ২০১৯ সালে এসে কোন দেশের কতটুকু উন্নতি হয়েছে, প্রতিবেদনে তার একটি তুলনাচিত্র দেখানো হয়েছে। এ তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে উন্নতি করেছে ভুটান। ২০০০ সালের ৬১৭ পয়েন্টের সঙ্গে ১৯৪ পয়েন্ট যোগ করেছে দেশটি। শিশু শিক্ষার হার বাড়ানোর কারণেই ভুটানের এই উন্নতি। এরপর আছে আফগানিস্তান (৪১১ পয়েন্ট থেকে ৫৯৬ পয়েন্ট)। তৃতীয় অবস্থানে আছে বাংলাদেশ (১৭৫ পয়েন্ট থেকে ৭২৮)। এরপর আছে নেপাল (৫৪৩ পয়েন্ট থেকে ৬৮৫ পয়েন্ট), ভারত (৬৩২ থেকে ৭৬৯), পাকিস্তান (৫৪০ থেকে ৬২৬) ও শ্রীলঙ্কা (৮৬৭ থেকে ৯১৫)।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ২০০০ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে ৫ থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশুশ্রমিকের হার কমানোর ক্ষেত্রে অনেক উন্নতি করেছে বাংলাদেশ।

সেভ দ্য চিলড্রেনের প্রতিবেদন অনুযায়ী শিশু শিক্ষার হার বৃদ্ধির ফলে শিশু স্বাস্থ্যে উল্লেখযোগ্য উন্নতি করেছে বাংলাদেশ।

এ ছাড়া ২০০০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত শিশুর মৃত্যুহার কমানোর ক্ষেত্রেও দারুণ অর্জন বাংলাদেশের।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ১৯৯০ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে বাংলাদেশ পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুর মৃত্যুহার কমিয়েছে ৭৭ শতাংশ।

এ ছাড়া প্রতিবেদনে বলা হয়, শিশুর মৃত্যুহার কমানোর যে বৈশ্বিক লক্ষ্য (প্রতি ১০০০ শিশুর মধ্যে ২৫ বা তার চেয়ে কম) নির্ধারণ করা হয়েছে, সেটি ২০৩০ সালের আগেই অর্জন করবে বাংলাদেশ।

Advertisement