Beta

কবর খুঁড়ে জীবন্ত শিশু উদ্ধার করল কুকুর

১৮ মে ২০১৯, ১১:০০ | আপডেট: ১৮ মে ২০১৯, ১২:২৬

অনলাইন ডেস্ক
থাইল্যান্ডের বান নং খাম গ্রামে জীবন্ত মাটিচাপা দেওয়া শিশুকে উদ্ধারকারী কুকুর পিংপং। ছবি : সংগৃহীত

কোনো এক পাপবোধ জগতের কাছে গোপন রাখার জন্য সদ্য জন্ম নেওয়া সন্তানকে জীবন্ত মাটিচাপা দিয়েছে কিশোরী এক মা। কিন্তু প্রকৃতির অপার লীলা- শিশুটি মারা যায়নি। মাটি খুঁড়ে সেই শিশুকে জীবন্ত উদ্ধার করেছে এক কুকুর।

ঘটনাটি ঘটেছে থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলের একটি গ্রামে। বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানাচ্ছে, মা-বাবার কাছে নিজের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনা লুকোতে ওই ছেলে শিশুটিকে মাটিচাপা দিয়ে যায় ১৫ বছর বয়সী কিশোরী মা। 

এদিকে যেন কোনো এক ইন্দ্রিয়বলে এই ঘটনা আঁচ করে অস্থির হয়ে ওঠে বান নং খাম গ্রামের বাসিন্দা উসা নিসাইখার কুকুর পিংপং। সে ঘেউঘেউ করতে করতে মাঠের দিকে ছুটে যায়, আর পায়ে আঁচড়ে মাটি খুঁড়ে জাদুকরের মতো বের করে আনে জীবন্ত সেই শিশুকে।

পিংপংয়ের মালিক উসা নিসাইখা বলেন, কুকরটিকে অস্থির দেখে সেটাকে অনুসরণ করেন তিনি। আর খেয়াল করেন যে, এক জায়গায় মাটি খুঁড়ে কিছু একটা বের করে আনছে পিংপং। পরে দেখা যায়, একটি শিশুর পা।

শিশুটিকে উদ্ধারের পর দ্রুত গ্রামবাসী তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। চিকিৎসকরা শিশুটিকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার পর জানান যে, সে সুস্থ আছে।

এদিকে শিশু উদ্ধারের পর সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে পিংপং। কিছুদিন আগে সড়ক দুর্ঘটনায় একটি প্রাইভেট কারের ধাক্কায় পিংপংয়ের একটি পা অচল হয়ে গেছে। 

অনেক আদরের পোষ্য পিংপংয়ের ব্যাপারে থাইল্যান্ডের সংবাদ মাধ্যম খাওসোদকে উসা নিসাইখা বলেন, ‘আমি ওকে আমার সঙ্গে রাখি কেননা ও খুব বিশ্বস্ত আর অনুগত। আমাকে সব সময় মাঠে আমার পশুর পাল চরাতে ও সাহায্য করে। ওকে সারা গ্রামের মানুষ ভালোবাসে। এটা আসলেই অবাক করার মতো!’ 

অন্যদিকে উদ্ধার হওয়া শিশুর মাকে সন্তান ফেলে যাওয়া ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ। 

চাম ফুয়াং পুলিশ স্টেশনের কর্মকর্তা পানুওয়াট পুট্টাকাম থাইল্যান্ডভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ব্যাংকক পোস্টকে জানান, কিশোরী ওই মা এখন তার মা-বাবা ও একজন মনস্তত্ত্ববিদের হেফাজতে আছে। সে তার কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত। মেয়েটির মা-বাবা উদ্ধার হওয়া শিশুটকে নিজেরাই মানুষ করবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Advertisement