Beta

ধর্ষণ নিয়ে মার্কিন সিনেটর, ‘আমি বহু বছর চুপ ছিলাম’

০৭ মার্চ ২০১৯, ১৫:৪২

অনলাইন ডেস্ক
সিনেটর মার্থা ম্যাকস্যালি। ছবি : সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনীর একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন দেশটির সিনেটর মার্থা ম্যাকস্যালি।

গতকাল বুধবার সিনেট আর্মড সার্ভিসেস উপকমিটিকে ম্যাকস্যালি বলেন, ‘আমি বহু বছর ধরে এ ব্যাপারে চুপ করে ছিলাম।’

লজ্জায় ও বিভ্রান্তির কারণে আগে ওই অভিযোগ করতে পারেননি বলে জানান এই মার্কিন সিনেটর।

ম্যাকস্যালি আরো বলেন, ‘এসব ঘটনায় সামরিক বাহিনী জড়িয়ে পড়েছে এবং তারা এ ব্যাপারে তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে না। তাই পরে আমি অনুভব করলাম, কিছু মানুষকে জানানো দরকার যে আমিও নিপীড়নের শিকার হয়েছিলাম।’

যুদ্ধে যোগ দেওয়া মার্কিন যুদ্ধবিমানের প্রথম নারী পাইলট ছিলেন মার্থা ম্যাকস্যালি।

মার্কিন এই সিনেটর বলেন, ‘হতাশার কারণে বিমানবাহিনী থেকে প্রায় ১৮ বছর বিচ্ছিন্ন ছিলাম আমি। এখানে অনেক ভুক্তভোগীর মতো আমারও মনে হয়েছিল, এখানকার পুরো পদ্ধতিটাই আমাকে ধর্ষণ করে চলছে।’

নিউইয়র্কের সিনেটর ক্রিশ্চেন জিলিব্র্যান্ড ম্যাকস্যালির অভিযোগের কথা জানতে পেরে অনেক মর্মাহত হয়েছেন বলে জানান।

বিমানবাহিনীতে ২৬ বছর কাজ করেছিলেন ম্যাকস্যালি। ২০১০ সালে অবসর নেওয়ার আগে তাঁর পদবি ছিল কর্নেল।

এরপর দুবার মার্কিন হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ম্যাকস্যালি। আর গত বছর সিনেটর নির্বাচিত হন তিনি।

এই প্রথমবারই নয় যে, ম্যাকস্যালি যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে কথা বললেন। এর আগেও তিনি এর বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন।

গত বছর সিনেটর নির্বাচনকালে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে তিনি জানিয়েছিলেন, ‘১৭ বছর বয়সে যখন তিনি হাইস্কুলে পড়তেন, ওই সময় স্কুলের অ্যাথলেটিক কোচ তাঁকে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের জন্য চাপ দিয়েছিলেন।’

এদিকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন আরেক নারী মার্কিন সিনেটর জনি আর্নেস্ত।

আইওয়া স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রেমিকের কাছে যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন বলে জানান সেনাবাহিনীর সাবেক এই নারী কর্মকর্তা ও বর্তমান সিনেটর।

Advertisement