Beta

নোবেল পুরস্কারের যোগ্য আমি নই : ইমরান

০৪ মার্চ ২০১৯, ১৫:১১

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানিয়েছেন, তিনি নন, কাশ্মীরের মানুষের ইচ্ছার ভিত্তিতে যিনি সমস্যাটার সমাধান করে দেবেন, তিনিই নোবেল পুরস্কারের যোগ্য।

পুলওয়ামার হামলার পর থেকে ভারতকে আলোচনায় আহ্বান জানানো, আটকে পড়া ভারতীয় পাইলটকে দুদিনের মধ্যে মুক্তি দেওয়া—এসবের কারণে ইমরান খানকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার দাবি করে তাঁর সমর্থক ও শুভানুধ্যায়ীরা।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে আজ সোমবার টুইটারে ওই মন্তব্য করেন ইমরান খান।

ইমরান খান টুইটারে লেখেন, ‘আমি নোবেল শান্তি পুরস্কারের যোগ্য নই। যিনি কাশ্মীরি জনগণের ইচ্ছা অনুযায়ী কাশ্মীর বিতর্কের সমাধান করবেন এবং উপমহাদেশের শান্তি ও মানব উন্নয়নের পথ দেখাবেন, তিনিই ওই পুরস্কারের জন্য যোগ্য।’

আটক ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে ফেরত দেওয়াসহ ইমরান খানের বিভিন্ন পদক্ষেপে তাঁকে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার দাবি তোলে সমর্থকরা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নিয়ে ঝড় তোলে তাঁর সমর্থকরা। হ্যাশট্যাগ দিয়ে ছড়িয়ে দেওয়া হয় দাবিটি। নোবেল দেওয়ার আবেদনে গতকাল রোববার পর্যন্ত তিন লাখের বেশি মানুষ সই করেছেন। সংবাদমাধ্যম ডন এ তথ্য জানিয়েছে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর কনভয়ে জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে। ওই হামলায় ৪১ সেনাসদস্য নিহত হন। ওই হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ওই হামলার জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করেন।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে ১২টি মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমান পাকিস্তানের বালাকোটে ‘জঙ্গি আস্তানা’য় ওই হামলা চালায়। ভারতের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, এতে ৩০০ ‘জঙ্গি’ নিহত হয়েছে। অন্যদিকে, ভারতীয় বিমানবাহিনীর নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রমের কথা স্বীকার করলেও হামলায় হতাহতের কথা স্বীকার করেনি পাকিস্তান। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এতে একজন আহত হলেও কেউ নিহত হয়নি।

পরদিনই পাকিস্তান সেনাবাহিনী দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করে। ওই ঘটনায় ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান আটক হন।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি পার্লামেন্টে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে মুক্ত করে দেওয়ার ঘোষণা দেন।

এর আগের দিন পাকিস্তানের গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্যে ইমরান খান বলেন, ‘আমার প্রশ্ন ভারতের কাছে, যে অস্ত্র আপনাদের কাছে আর আমাদের কাছে আছে, আমরা কি মিস ক্যালকুলেশন বহন করতে পারব? যুদ্ধ শুরু হলে কোথায় যাবে? না আমার নিয়ন্ত্রণে থাকবে, না নরেন্দ্র মোদির নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এ কারণে আমি আবারও আলোচনার আহ্বান জানাই।’ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যেকোনো সংলাপের জন্য আমি প্রস্তুত।’

ইমরান খান বলেন, ‘দুই যুদ্ধবিমান সীমান্ত ক্রস করেছে, গুলি করা হয়েছে। এখন কী হবে? খুব জরুরি এখানে বিবেক ও প্রজ্ঞার ব্যবহার করা। যত যুদ্ধ হয়েছে, বড় বড় সব যুদ্ধে মিস ক্যালকুলেশন হয়েছে। কেউ ভাবেনি যে যুদ্ধ শুরু করেছি, তা কোথায় যাবে।’

গত ১ মার্চ নিজ দেশে ফেরেন পাকিস্তানে আটক ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান। পাকিস্তানের পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে ইমরান খান বলেন, ‘শান্তি প্রক্রিয়ার পক্ষে শুভেচ্ছাস্বরূপ আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দেওয়া হবে।’

Advertisement